উত্তর প্রদেশের বুলন্দশহরে গোরক্ষাকারীদের হাতে পুলিশ ইন্সপেক্টর সুবোধ কুমার সিংহে হত্যার ঘটনায় কড়া ভাষায় নিন্দা করল সিপিএম। গরুর মাংস উদ্ধার এবং তাকে কেন্দ্র করে দাঙ্গার পরিবেশ তৈরি করা লোকসভা নির্বাচনের আগে হিন্দুত্ববাদী দলগুলির পরিকল্পনামাফিক চক্রান্ত বলে অভিযোগ সিপিএমের।
সিপিএমের প্রাক্তন সাধারণ সম্পাদক প্রকাশ কারাটের অভিযোগ, গত লোকসভা ভোটের আগে ২০১৩ সালে যেভাবে মুজফফরনগরে দাঙ্গা করা হয়েছিল, এবারও ২০১৯ লোকসভা ভোটের আগে সেই চক্রান্ত করা হচ্ছে। বুলন্দশহরের ঘটনার পেছনেও হাত রয়েছে বিজেপির। বুলন্দশহরের ঘটনা বিজেপির ‘পরিকল্পনা মাফিক’ কাজ বলে অভিযোগ কারাটের। এই হিংসার জন্য উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথকেও পরোক্ষভাবে দায়ী করে সিপিএমের বক্তব্য, যোগীর মেরুকরণের রাজনীতি ও বিভিন্ন সভায় উত্তেজনাপূর্ণ বক্তব্য এই ধরনের হিংসাকে উস্কানি দেয়।
সিপিএম পলিটব্যুরোর এক বিবৃতিতে পুলিশ অফিসার সুবোধ কুমার সিংহের হত্যার ঘটনার তীব্র নিন্দা করে বলা হয়েছে, এই ঘটনা পরিকল্পনামাফিক ঘটানো হয়েছে আগামী লোকসভা নির্বাচনকে সামনে রেখে। কারাট বলেন, পরিকল্পনা করে বুলন্দশহরের ঘটনা ঘটানো হয়েছে। গো-হত্যাকে ইস্যু করে দাঙ্গা লাগানোর একটা চেষ্টা চলছে। ঠিক যেমন ২০১৪ সালের নির্বাচনের আগে মুজফফরনগরে দাঙ্গা করা হয়েছিল, একই ছকে বুন্দলশহরেও সেই চেষ্টা করা হয়েছে।
উল্লেখ্য, বুলন্দশহরের ঘটনায় জড়িতদের মধ্যে অধিকাংশই হিন্দুত্ববাদী ডানপন্থী দলের সদস্য বলে পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে। জানা গিয়েছে, পুলিশ অফিসার সুবোধ কুমার সিংহ হত্যার মূল অভিযুক্ত যোগেশ রাজ বজরং দলের সদস্য।