ঝাড়গ্রামের সভা থেকে বিজেপিকে তীব্র আক্রমণ করলেন মুখ্যমন্ত্রী। পাশাপাশি, এলাকায় সাম্প্রদায়িক অশান্তি রুখতে কন্যাশ্রী পাওয়া মেয়েদের বিশেষ দায়িত্ব দিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বললেন, বিজেপি টাকা ছড়িয়ে ভোট কিনতে চাইছে। টাকা নিয়ে নেবেন, কিন্তু ভোট দেবেন না।
সম্প্রতি, লালগড়ে একই পরিবারের একাধিক ব্যক্তির অপুষ্টি এবং রোগে মৃত্যুর অভিযোগ উঠেছিল। সেই প্রসঙ্গে মুখ্যমন্ত্রী জানান, আগে জঙ্গলমহলের মানুষকে পিঁপড়ের ডিম খেয়ে থাকতে হোত, এখন অনেক উন্নতি হয়েছে। সোমবার ঝাড়গ্রামে সভা ছিল মুখ্যমন্ত্রীর।
সভায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, রাবনকে হারাতে মা দুর্গার পুজো করেছিলেন শ্রী রাম। বিজেপি রামের পুজো করলে আমরাও মা দুর্গার পুজো করি। কিন্তু আমরা বিজেপির মতো ধর্মের নামে বিভেদ, অশান্তি তৈরি করি না। ওরা ভোট পাওয়ার জন্য রামকে বিক্রি করতে চায়, আমরা মা দুর্গাকে বিক্রি করি না। মাকে বিক্রি করা যায় না। সোমবার ঝাড়গ্রামের জামবনিতে সভা থেকে বিজেপিকে এভাষাতেই আক্রমণ করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পাশাপাশি, তিনি কন্যাশ্রী পাওয়া মেয়েদের উদ্দেশ্যে বলেন, এলাকায় যেন কেউ সাম্প্রদায়িক অশান্তি তৈরি করতে না পারে, তার জন্য পরিবারের লোকজন এবং প্রতিবেশীদের বোঝাতে হবে তাঁদের। মমতা এদিন উপস্থিত সাধারণ মানুষের উদ্দেশ্যে বলেন, বিজেপি টাকা দিয়ে ভোট কিনতে এলে টাকা নেবেন, কিন্তু ভোট বিজেপিকে দেবেন না। বিজেপির পাশাপাশি এদিন সিপিএমকেও আক্রমণ করেন মুখ্যমন্ত্রী। বলেন, ৩৪ বছর রাজ্যে ক্ষমতায় থেকেও ভালো কিছু করেনি তারা। সিপিএমের কোনও মতাদর্শ নেই। তারা বিজেপির সঙ্গে হাত মিলিয়েছে। সকালে লাল জামা, বিকেলে গেরুয়া জামা পরছে সিপিএম এখন।
মুখ্যমন্ত্রী এদিন বলেন, তৃণমূল সরকারের আমলে জঙ্গলমহলের অনেক উন্নতি হয়েছে। আগে এখানে মানুষকে পিঁপড়ের ডিম খেয়ে থাকতে হোত। এখন রাজ্য সরকার তাদের দু’টাকা কিলো চাল, গম দিচ্ছে। বলেন, বাম আমলে এখানে আগে রোজ রক্ত ঝড়তো, এখন খুনোখুনি সব বন্ধ। সীমাবদ্ধ আর্থিক ক্ষমতার মধ্যেও সরকার ঝাড়গ্রামের অনেক উন্নতি করেছে।