আদালত অবমাননার দায়ে সিবিআই-এর প্রাক্তন অন্তর্বর্তীকালীন প্রধান এম নাগেশ্বর রাও। মঙ্গলবার সুপ্রিম কোর্ট তাঁকে এক লক্ষ টাকা জরিমানা করার পাশাপাশি, তাঁকে আদালতে বসে থাকার নির্দেশ দেয়।
বিহারের একটি সরকারি হোমে শিশুদের যৌন নিগ্রহের ঘটনার তদন্তকারী সিবিআই অফিসার এ কে শর্মার বদলির নির্দেশ দিয়েছিলেন সিবিআই-এর প্রাক্তন অন্তর্বর্তীকালীন ডিরেক্টর নাগেশ্বর রাও। সুপ্রিম কোর্টকে না জানিয়ে এই সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য এর আগে শীর্ষ আদালতের তীব্র ভর্ৎসনার শিকার হয়েছিলেন নাগেশ্বর রাও। এরপর নিজের ভুল স্বীকার করে শীর্ষ আদালতের কাছে নিঃশর্ত ক্ষমাও চেয়েছিলেন তিনি। সুপ্রিম কোর্টে এক হলফনামা জমা দিয়ে নাগেশ্বর রাও জানিয়েছিলেন, মুজফফরপুর হোমের ঘটনার তদন্তকারী অফিসারকে বদলি করার আগে আদালতের অনুমতি নেওয়া উচিত ছিল তাঁর। কিন্তু তাতেও পার পেলেন না।
আদালতকে না জানিয়ে এই সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য মঙ্গলবার সুপ্রিম কোর্ট জানাল, আদালত অবমাননার শাস্তি পেতে হবে সিবিআই-এর প্রাক্তন অন্তর্বর্তীকালীন প্রধানকে। এদিন সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি রঞ্জন গগৈ জানান, নাগেশ্বর রাওয়ের এই সিদ্ধান্ত নিছক ভুল নয়। ইচ্ছাকৃতভাবে আদালত অবমাননা করেছেন তিনি। তাই নাগেশ্বর রাওয়ের হলফনামা খারিজ করে তাঁকে এক লক্ষ টাকা জরিমানা দেওয়ার নির্দেশ দেয় সুপ্রিম কোর্ট। শুধু তাই নয়, শীর্ষ আদালত নির্দেশ দেয়, মঙ্গলবার যতক্ষণ না আদালত শেষ হচ্ছে ততক্ষণ তাঁকে সেখানে বসে থাকতে হবে। সিবিআই-এর প্রাক্তন অন্তর্বর্তীকালী প্রধানকে সুপ্রিম কোর্টের নজিরবিহীন নির্দেশ, ‘এক কোণায় গিয়ে বসে থাকুন।’
প্রসঙ্গত, সিবিআই-এর প্রাক্তন ডিরেক্টর অলোক ভার্মা ও ডেপুটি ডিরেক্টর রাকেশ আস্থানার বিবাদের জেরে দু’জনকেই ছুটিতে পাঠিয়ে দিয়েছিল কেন্দ্র। আর অলোক ভার্মার জায়গায় সিবিআই-এর ভারপ্রাপ্ত ডিরেক্টরের পদে বসানো হয়েছিল এম নাগেশ্বর রাওকে। তারপরই তিনি সিবিআই অফিসার এ কে শর্মাসহ ৭ অফিসারকে বদলির নির্দেশ দিয়েছিলেন।

You may also like