বিজেপির রথযাত্রা নিয়ে সিঙ্গল বেঞ্চের রায় খারিজ করে দিল কলকাতা হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ। যদিও আপাতত রথযাত্রার অনুমতিও দিল না আদালত।
বৃহস্পতিবার হাইকোর্টের বিচারপতি তপোব্রত চক্রবর্তী রায় দিয়েছিলেন, আইন-শৃঙ্খলার অবনতির আশঙ্কায় রথযাত্রা করা যাবে না। শুক্রবার হাইকোর্ট জানাল, আগামী বুধবার, ১২ ই ডিসেম্বরের মধ্যে রাজ্যের মুখ্যসচিব এবং স্বরাষ্ট্র সচিব এবং পুলিশের ডিজি বিজেপির প্রতিনিধিদের সঙ্গে বৈঠক করবেন এবং সেখানে আলোচনা করে ঠিক করতে হবে রথযাত্রা নিয়ে কী করা হবে। শুক্রবারের মধ্যে রথযাত্রা নিয়ে সিদ্ধান্ত নিতে হবে সরকারকে। তবে রথযাত্রার সরাসরি কোনও অনুমতিও ডিভিশন বেঞ্চ দেয়নি এদিন। এদিকে, শনিবারই রথযাত্রার জন্য কলকাতায় আসবেন বলে এদিন জানিয়েছেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ।
কোচবিহার, সাগর এবং বীরভূম থেকে তিনটি রথযাত্রার প্রস্তুতি নিয়েছিল রাজ্য বিজেপি। এদিনই কোচবিহার থেকে রথযাত্রা শুরু হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু কোচবিহারের পুলিশ সুপারের রিপোর্টের ভিত্তিতে বৃহস্পতিবার সিঙ্গল বেঞ্চ জানিয়েছিল, আগামী ৯ ই জানুয়ারি পরবর্তী শুনানি পর্যন্ত রথযাত্রা করা যাবে না। এর বিরুদ্ধে এদিন হাইকোর্টের ডিভিশন বেঞ্চে আবেদন করে বিজেপি। বিজেপির আইনজীবী আদালতে জানান, বারবার সরকারকে চিঠি দিয়ে রথযাত্রার জন্য অনুমতি চাওয়া হয়েছিল। কিন্তু সরকার কোনও চিঠির জবাব দেয়নি। রাজ্যের পক্ষ থেকে আদালতে জানানো হয়, গণ্ডগোলের আশঙ্কায় রথযাত্রার অনুমতি দেওয়া যাবে না।
দীর্ঘ শুনানির পর ডিভিশন বেঞ্চ জানিয়ে দেয়, আগামী বুধবারের মধ্যে রাজ্যের তিন প্রশাসনিক কর্তা মুখ্য সচিব, স্বরাষ্ট্র সচিব এবং রাজ্য পুলিশের ডিজিকে বিজেপি প্রতিনিধিদের সঙ্গে আলোচনা করে রথযাত্রার ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিতে হবে। বিচারপতি বিশ্বনাথ সমাদ্দার জানান, সরকার বিজেপির চিঠিগুলির কোনও জবাব দিলে এই পরিস্থিতি তৈরি হোত না। তিনি বলেন, সিঙ্গল বেঞ্চের রায় অনুযায়ী ৯ ই জানুয়ারি পর্যন্ত মামলাকে টেনে নিয়ে যাওয়ার মানে হয় না। তবে আদালত এদিন স্পষ্ট জানিয়েছে, আগামী বুধবার পর্যন্ত রথযাত্রা নিয়ে কোনও সমাবেশ করা যাবে না। তিনি আরও বলেন, বুধবার বৈঠকের পর আগামী শুক্রবারের মধ্যে সরকারকে জানাতে হবে রথযাত্রা নিয়ে তাদের কী অবস্থান।
তবে সরকার নির্দিষ্ট কারণ ছাড়া কোনও সিদ্ধান্ত নিতে পারবে না।
এদিকে, এদিনই দিল্লিতে সাংবাদিক বৈঠক করে রাজ্য সরকারকে এই ইস্যুতে আক্রমণ করেন অমিত শাহ। তিনি বলেন, রাজ্য সরকার কোনওভাবেই রথযাত্রা ঠেকাতে পারবে না। অমিত শাহ জানান, শনিবার তিনি কলকাতায় আসবেন এবং রথযাত্রার কর্মসূচিতে অংশ নেবেন।

You may also like