রাজস্থানের জয়পুর সভা থেকে প্রতিরক্ষামন্ত্রী নির্মলা সীতারামণকে আক্রমণ করায় জাতীয় মহিলা কমিশন নোটিশ পাঠাল কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধীকে। বুধবার জয়পুর সভা থেকে ফের রাফাল প্রসঙ্গে মোদীকে আক্রমণ করেন রাহুল। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে আক্রমণ করে রাহুল বলেন, রাফাল প্রসঙ্গে অস্বস্তিকর প্রশ্ন এড়াতে লোকসভা থেকে পালিয়ে পঞ্জাবে সভা করতে গিয়েছিলেন নরেন্দ্র মোদী। এরপরই কংগ্রেস সভাপতি মন্তব্য করেন, ৫৬ ইঞ্চির চৌকিদারের নিজেকে রক্ষা করার ক্ষমতা নেই, তাই প্রতিরক্ষামন্ত্রী সীতারামণজীর কাছে অনুরোধ করেন আমায় রক্ষা করুন। কিন্তু ওই মহিলাও রক্ষা করতে পারেননি প্রধানমন্ত্রীকে।
জাতীয় মহিলা কমিশনের মুখ্য আধিকারিক রেখা শর্মা বৃহস্পতিবার জানান, একজন মহিলা সম্পর্কে যে ভাষায় মন্তব্য করেছেন রাহুল গান্ধী তা কোনও রাজনীতিবিদের কাছে অভিপ্রেত নয়। তিনি রাহুলের এই মন্তব্যকে নারীবিদ্বেষী বলে অভিযোগ করেছেন। বিদেশমন্ত্রী সুষমা স্বরাজও রাহুলের এই মন্তব্যের কড়া সমালোচনা করেন।
রাহুলের এই আক্রমণ যাঁকে ঘিরে, সেই নরেন্দ্র মোদীও পালটা কংগ্রেসকে আক্রমণ শানিয়ে বলেন, রাহুলের এই মন্তব্য কেবল সীতারামণকে নয়, দেশের প্রত্যেক মহিলাকে অসম্মানিত করল। রাহুলের সভার কয়েক ঘন্টা পরে আগ্রার সভা থেকে মোদী বলেন, রাফাল প্রসঙ্গে বিরোধীদের সব প্রশ্নের যথাযথ উত্তর দিয়েছেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী নির্মলা সীতারামণ। কংগ্রেসের মিথ্যাচারকে বন্ধ করে, রাফালের বিরুদ্ধে ওঠা যাবতীয় অভিযোগকে নস্যাৎ করেছেন প্রতিরক্ষামন্ত্রী। এই প্রথমবার কোনও মহিলা দেশের প্রতিরক্ষা দফতরের দায়িত্ব সামলাচ্ছেন। কংগ্রেস সেই সীতারামণকে অপমান করে দেশের মহিলাদের ক্ষমতায়নকেই অপমান করলেন।
যদিও, তাতেও রাহুল থামেননি। তিনি ফের প্রধানমন্ত্রীর বিরুদ্ধে তোপ দেগে ট্যুইট করেন, পুরুষ হোন। রাফাল প্রসঙ্গে একটা প্রশ্নের পরিষ্কার উত্তর দিন। আপনি যখন চুক্তি বদল করছিলেন, তখন প্রতিরক্ষা মন্ত্রক ও বায়ুসেনা কি বারন করেছিল?
সব মিলিয়ে রাফাল নিয়ে মোদী-রাহুল উত্তাপের পারদ ক্রমশ বাড়ছে।