প্রবল বেগে ধেয়ে আসছে বুলবুল। আবহাওয়া অফিস জানাচ্ছে, শনিবার রাত ৮ টা থেকে ১১ টার মধ্যে দক্ষিণ ২৪ পরগনার সাগরদ্বীপে আছড়ে পড়বে ঘূর্ণিঝড়। গতিবেগ থাকবে ১১০ থেকে ১২০ কিলোমিটার। তবে কলকাতা সাইক্লোনের কোর এরিয়ার বাইরে। কলকাতায় বুলবুলের জেরে ভারী বৃষ্টিপাত এবং ৫০ থেকে ৭০ কিলোমিটার গতিতে ঝোড়ো হাওয়া বইবে। সন্ধে ৬ টা থেকে ১২ ঘণ্টার জন্য কলকাতা বিমানবন্দর বন্ধ থাকছে, সকাল থেকে বন্ধ রয়েছে কলকাতা-হাওড়া ফেরি চলাচল। পাশাপাশি বেশ কয়েকটি জেলাতেও ফেরি চলাচল বন্ধ রাখা হয়েছে।

শেষ পাওয়া খবর অনুযায়ী, কলকাতা থেকে ১৮৫ কিলোমিটার দূরে অবস্থান করছে বুলবুল, সাগরদ্বীপ থেকে দুরত্ব মাত্র ৮০ কিলোমিটার। নবান্নের কন্ট্রোলরুম থেকে প্রশাসনিক আধিকারিকরা পরিস্থিতির উপর প্রতি মুহূর্তে নজর রাখছেন। মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি নিজে রয়েছেন নবান্নের কন্ট্রোল রুমে। আবহাওয়া দফতরের তরফে অতি ভারী বৃষ্টির পাশাপাশি প্রবল বেগে ঝোড়ো হাওয়ার সতর্কতা জারি করা হয়েছে গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গের উপকূলবর্তী অঞ্চলে।

কলকাতায় ঝড়ের গতিবেগ হতে পারে ৫০ থেকে ৭০ কিলোমিটার প্রতি ঘণ্টা। শনিবার সন্ধে ৬ টা থেকে রবিবার সকাল ৬ টা পর্যন্ত কলকাতা বিমানবন্দরে সমস্ত উড়ান ওঠানামা বাতিল করা হয়েছে। ঘূর্ণিঝড়ের আশঙ্কায় কলকাতার সর্বত্র ফেরি চলাচল বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। হাওড়া, হুগলিতেও বন্ধ ফেরি চলাচল। মহানগরের রাস্তাগুলি প্রায় জনশূন্য। রাস্তায় গাড়ি চলাচলের সংখ্যা কম। অধিকাংশ দোকান-বাজারই বন্ধ।

এদিকে সমুদ্র উপকূলবর্তী অঞ্চলের মানুষদের নিরাপদ স্থানে সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।  উত্তর ও দক্ষিণ ২৪ পরগনায় বুলবুলের বড় প্রভাব পড়ার আশঙ্কা রয়েছে। রাজ্যের মৎস্যজীবীদের সমুদ্রে যেতে নিষেধ করা হয়েছিল আগেই। সমুদ্রে নামার ক্ষেত্রেও কড়া নিষেধাজ্ঞা জারি রয়েছে। দিঘা, মন্দারমণি, শঙ্করপুর, বকখালি সহ রাজ্যের সমুদ্র পর্যটনক্ষেত্র কার্যত পর্যটকশূন্য। সমুদ্র তটে কড়া পাহারা উপকূল রক্ষী বাহিনী এবং জেলা প্রশাসনের।

নবান্ন সূত্রে খবর, সুন্দরবনের উপকূল এলাকা থেকে প্রায় ৮৪ হাজার মানুষকে সরিয়ে নিরাপদ আশ্রয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

প্রশাসন সূত্রের খবর, সমুদ্র উপকূল এলাকায় ঝোড়ো হাওয়ার সঙ্গে শুরু হয়েছে জলোচ্ছ্বাস। ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’ উপকূলের কাছকাছি এসে পড়ায় পূর্ব মেদিনীপুরের দিঘা ও দক্ষিণ ২৪ পরগনার সুন্দরবন এলাকার পরিস্থিতি নিয়ে চিন্তায় রয়েছে প্রশাসন।

 

ধারাবাহিকভাবে পাশে থাকার জন্য The Bengal Story র পাঠকদের ধন্যবাদ। আমরা শুরু করেছি সাবস্ক্রিপশন অফার। নিয়মিত আমাদের সমস্ত খবর এসএমএস এবং ই-মেইল এর মাধ্যমে পাওয়ার জন্য দয়া করে সাবস্ক্রাইব করুন। আমরা যে ধরণের খবর করি, তা আরও ভালোভাবে করতে আপনাদের সাহায্য আমাদের উৎসাহিত করবে।

Login Subscribe