দেশে ১,৪৪৫ জন নাগরিক প্রতি চিকিৎসক একজন, হু নির্ধারিত চিকিৎসকের চেয়ে ভারতে ডাক্তারের সংখ্যা বেশ কম, জানাল কেন্দ্র

দেশের ১ হাজার ৪৪৫ নাগরিক প্রতি চিকিৎসকের সংখ্যা সাকুল্যে একজন। বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (হু) বলছে,  ১ হাজার মানুষ পিছু ন্যূনতম একজন ডাক্তার থাকা উচিত। সংসদে এমনই তথ্য জানিয়েছে কেন্দ্র।
কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী অশ্বিনী চৌবে রাজ্যসভায় জানিয়েছেন, চলতি বছরের ৩১ মার্চ পর্যন্ত স্টেট মেডিকেল কাউন্সিল ও মেডিকেল কাউন্সিল অফ ইন্ডিয়ায় (এমসিআই) ১১ লক্ষ ৫৯ হাজার ৩০৯ জন এলোপ্যাথ চিকিৎসকের নাম নথিভুক্ত হয়েছে। তার মধ্যে ৯ লক্ষ ২৭ হাজার এলোপ্যাথির চিকিৎসক সক্রিয়ভাবে কাজ করছেন। দেশের জনসংখ্যা ১৩৫ কোটি ধরলে প্রতি ১ হাজার ৪৪৫ জন রোগী প্রতি চিকিৎসক সংখ্যা দাঁড়াচ্ছে মাত্র একজন। পাশাপাশি কেন্দ্রীয় মন্ত্রী আরও জানান, ৭ লক্ষ ৮৮ হাজার আয়ুর্বেদ, ইউনানি এবং হোমিওপ্যাথি চিকিৎসক আছে। যার মধ্যে ৬ লক্ষ ৩০ হাজার ডাক্তার গতানুগতিক চিকিৎসা বিজ্ঞান অনুযায়ী রোগীর সেবায় নিয়োজিত আছেন।
কেন্দ্রীয় মন্ত্রী জানান, এলোপ্যথি ও হোমিওপ্যাথি,আয়ুর্বেদ, ইউনানি চিকিৎসক মিলিয়ে ডাক্তার ও রোগীর অনুপাত দাঁড়াচ্ছে ৮৬০ জন প্রতি মাত্র একজন চিকিৎসক। যদিও প্রশ্ন উঠেছে, বিভিন্ন দূরারোগ্য ব্যাধির জন্য কত সংখ্যক মানুষ এলোপ্যাথির চেয়ে আয়ুর্বেদ বা হোমিওপ্যাথি চিকিৎসার উপর নির্ভর করে চিকিৎসা করান বা আস্থা রাখেন। সে ব্যাপারে অবশ্য কোনও তথ্য দেননি কেন্দ্রীয় মন্ত্রী।
মোদী সরকারের স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রী রাজ্যসভায় দাবি করেছেন, জনস্বাস্থ্যের প্রতি অধিক গুরুত্ব দিচ্ছেন তাঁরা। তবে নাগরিকদের চিকিৎসা সংক্রান্ত ও সরকারি হাসপাতালের পরিকাঠামোর দিক দেখার গুরুদায়িত্ব অনেকটাই রাজ্য সরকারগুলির উপর বর্তায় বলে জানান তিনি। স্বাস্থ্যক্ষেত্রে মোদী সরকার রাজ্যগুলির সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করছে বলে দাবি কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য প্রতিমন্ত্রীর।

Comments
Loading...