লাল কেল্লার ‘কর্পোরেট দত্তকে’র বিরোধিতায় সরব হলেন ঐতিহাসিকরা

ঐতিহাসিক সৌধ লাল কেল্লাকে ২৫ কোটি টাকার বিনিময়ে ডালমিয়া সিমেন্ট গোষ্ঠীর হাতে তুলে দেওয়ার কেন্দ্রীয় সরকারের সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে তীব্র প্রতিবাদ জানাল ইন্ডিয়ান হিস্টোরিক কংগ্রেস। ঐতিহাসিকদের অভিযোগ, এর আগে কোনও সৌধ রক্ষণাবেক্ষনের অভিজ্ঞতা না থাকা সত্বেও যেভাবে ডালমিয়া গোষ্ঠীর হাতে লাল কেল্লাকে তুলে দেওয়ার ব্যবস্থা সরকার করেছে,তা ধিক্কারজনক। এর পাশাপাশি লাল কেল্লা অধিগ্রহণ সংক্রান্ত তথ্যে ‘হস্তান্তর’,’নির্মাণ’সহ বেশ কিছু আপত্তিকর শব্দের ব্যবহার রয়েছে বলেও তাঁরা অভিযোগ জানিয়েছেন। ঐতিহাসিকদের দাবি, সিদ্ধান্তটি বাণিজ্যিক স্বার্থে একতরফাভাবে নেওয়া হয়েছে। কেন্দ্রীয় উপদেষ্টা পর্ষদের কোনও সংস্থার অধীনে এই বিষয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা প্রয়োজন অথবা ডালমিয়া গোষ্ঠীর সঙ্গে চুক্তিটি স্থগিত রাখা উচিত’। ঐতিহাসিক সৌধ সংরক্ষণ বিশেষজ্ঞ সাহিল হাসমি জানিয়েছেন, ‘প্রতিবছর লাল কেল্লা দেখতে প্রায় ২৪ লক্ষ পর্যটক আসেন, তাঁদের মধ্যে প্রায় দেড় লক্ষ বিদেশি পর্যটক। বেসরকারি সংস্থাকে বিদেশি মুদ্রা আয়ের ব্যবস্থা করে দেওয়াই এই ‘দত্তক’ ব্যবস্থার আসল উদ্দেশ্য’। সম্প্রতি লাল কেল্লা ছাড়াও তাজমহলসহ দেশের ১০০টি ঐতিহাসিক সৌধকে ‘অ্যাডপ্ট আ হেরিটেজ’ নীতির আওতায় কর্পোরেটগোষ্ঠীকে পাঁচ বছরের জন্য দত্তক দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্র। তাতে কম জলঘোলা হয়নি। বিরোধীরাও কেন্দ্রের এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে সরব হয়েছেন। এই পরিপ্রেক্ষিতে ঐতিহাসিকদের প্রতিবাদ যথেষ্টই তাৎপর্যপূর্ণ।

Comments
Loading...