প্রীতম কোটাল। বাংলা তথা ভারতীয় ফুটবলের পরিচিত নাম। মোহনবাগানের প্রাক্তন ফুটবলার এখন খেলেন আইএসএলের ক্লাব এটিকে-তে। ভারতের জাতীয় দলের নিয়মিত ফুটবলার প্রীতম। শনিবার যুবভারতী স্টেডিয়ামে আইএসএল-এর গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছিল এটিকে এবং জামশেদপুর এফসি। এই ম্যাচ দেখতেই যুবভারতীতে এসেছিলেন প্রীতমের পরিবার। কিন্তু অভিযোগ, শনিবার যুবভারতীতে ঢোকার সময় পুলিশি হেনস্তার সম্মুখীন হতে হয় তাঁদের। বিধাননগর পুলিশের বিরুদ্ধে বারবার সরব হয়েছেন ফুটবল সর্মথকরা। ফ্লেক্স মাঠের ভেতরে নিয়ে যেতে বাধা দেওয়া হয়।
শনিবার প্রীতম কোটালের বাবা, দাদা এবং তাঁর বান্ধবী বৃষ্টির মধ্যে ছাতা নিয়ে মাঠে ঢুকছিলেন। পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়, এই তুমুল বৃষ্টির মধ্যেও ছাতা নিয়ে মাঠে ঢোকা যাবে না। তাঁরা অনেক করে বোঝানোর চেষ্টা করেন যে তাঁরা ফুটবলারের পরিবার। শেষে এটিকে কর্তাদের খবর দেন তাঁরা। এটিকের এক কর্মী স্টেডিয়ামের ভেতর থেকে প্রীতমের পরিবারের জন্য ছাতা নিয়ে আসেন। কিন্তু সেই ছাতাতেও প্রীতমের পরিবারকে মাঠে ঢুকতে দেয়নি পুলিশ। প্রতিবাদ করতে গেলে প্রীতমের বয়স্ক বাবাকে ধাক্কা মেরে নীচে ফেলে দেওয়ার অভিযোগ ওঠে পুলিশের বিরুদ্ধে। অভিযোগ, প্রীতমের বাবাকে বাঁচাতে গেলে, পুলিশ শারীরিকভাবে হেনস্থা করে তাঁর দাদাকেও। তারপর তাঁকে তুলে নিয়ে যাওয়া হয় থানায়। ম্যাচ শেষ হওয়ার ১০ মিনিট আগে নিজেদের ভুল বুঝতে পেরে প্রীতমের দাদাকে স্টেডিয়ামে পৌঁছে দেয় পুলিশ। গোটা ঘটনায় আরও একবার প্রশ্নের মুখে বিধাননগর পুলিশ। সোশ্যাল মিডিয়ায় ক্ষোভ উগরে দিচ্ছেন সমর্থকরা।
এই ম্যাচে অবশ্য জামশেদপুর এফসি কে ৩-১ গোলে হারিয়ে আইএসএলে শীর্ষে উঠে এল এটিকে।

 

ধারাবাহিকভাবে পাশে থাকার জন্য The Bengal Story র পাঠকদের ধন্যবাদ। আমরা যে ধরনের খবর করি, তা আরও ভালোভাবে করতে আপনাদের সাহায্য আমাদের উৎসাহিত করবে।

Login Support us

You may also like

Suresh Raina Takes on Yuvraj
Tokyo Olympics 2020 Postponed