প্রয়াত নাট্যকার ঊষা গাঙ্গুলি, নাট্য ও সংস্কৃতি জগতে শোকের ছায়া

প্রয়াত হলেন নাট্যকার ঊষা গাঙ্গুলি। দক্ষিণ কলকাতার প্রিন্স আনোয়ার শাহ রোডের বাড়িতে একাই থাকতেন তিনি। বৃহস্পতিবার সকালে গৃহপরিচারিকা বাড়িতে গিয়ে দেখেন দরজা খোলা। ঊষা গাঙ্গুলি ঘরে অচেতন অবস্থায় পড়ে রয়েছেন। তিনি পাড়ার লোকজনকে ডাকেন। চিকিৎসককেও ডাকা হয়। কীভাবে তাঁর মৃত্যু হল তা বুঝতে ঊষা গাঙ্গুলির দেহ ময়না তদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে। কিছু দিন আগেই তাঁর ছোট ভাইয়ের মৃত্যু হয়।
ঊষা গাঙ্গুলির মৃত্যুতে নাট্য ও সংস্কৃতি জগতে শোকের ছায়া নেমে আসে। ১৯৪৫ সালে রাজস্থানের যোধপুর শহরে জন্ম তাঁর। মাতৃভাষা হিন্দি হলেও বাংলা থিয়েটারে তিনি রেখেছেন অসামান্য কৃতিত্বের স্বাক্ষর। পরিচালক-অভিনেত্রী এবং সক্রিয় সমাজকর্মী হিসেবে তিনি পরিচিত ছিলেন। সাত ও আটের দশকে কলকাতা শহরে হিন্দি থিয়েটারে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন ঊষাদেবী। ১৯৭৬-এ রঙ্গকর্মী গ্রুপ থিয়েটার প্রতিষ্ঠা করেন। সেই দলের প্রযোজনায় ‘মহাভোজ’, ‘রুদালি’, ‘কোর্ট মার্শাল’ এবং ‘অন্তর্যাত্রা’-র মতো নাটক পরিবেশিত হয়।
১৯৯৮ সালে ‘সংগীত নাটক অ্যাকাডেমি’ থেকে ঊষা গঙ্গোপাধ্যায় পুরস্কৃত হন। এ ছাড়া ‘গুড়িয়া ঘর’ নাটকে অভিনয়ের জন্যে তিনি পশ্চিমবঙ্গ সরকার কর্তৃক শ্রেষ্ঠ অভিনেতার সম্মানও অর্জন করেছিলেন।

Comments
Loading...