প্রচারে সেনা নামে আপত্তি, রাষ্ট্রপতিকে চিঠি ১৫৬ জন অবসরপ্রাপ্ত সেনার, সাক্ষর তিন বাহিনীর ৮ প্রাক্তন প্রধানেরও

রাজনৈতিক প্রচারে সেনার নাম ব্যবহার নিয়ে নির্বাচন কমিশনের সুস্পষ্ট নির্দেশ রয়েছে কিন্তু মোদী থেকে যোগী, সেনার নাম করে ভোট ভিক্ষা অব্যাহত। এই প্রেক্ষিতে এবার সেনার রাজনৈতিক ব্যবহার নিয়ে সরব হলেন সেনাবাহিনীর প্রাক্তনীদের একটা বড় অংশ। রাজনৈতিক ডিভিডেন্ড পেতে ভোট প্রচারে সেনার নামের অপব্যবহার রুখতে এবার তিন বাহিনীর সর্বাধিনায়ক রাষ্ট্রপতিকে চিঠি দিলেন মোট ১৫৬ জন অবসরপ্রাপ্ত সেনা কর্মী। চিঠিতে সাক্ষর করেছেন ৩ প্রাক্তন সেনা প্রধান, ৪ জন প্রাক্তন নৌসেনা প্রধান এবং প্রাক্তন বায়ুসেনা প্রধান। দেশে সাধারণ নির্বাচন শুরুর দিন অর্থাৎ বৃহস্পতিবার এই আর্জি জানিয়ে রাষ্ট্রপতি রামনাথ কোবিন্দকে চিঠি দেন তাঁরা। তবে রাষ্ট্রপতি ভবন সূত্রে এমন কোনও চিঠির কথা অস্বীকার করা হয়েছে।

রাষ্ট্রপতিকে পাঠানো চিঠিতে প্রাক্তন সেনা কর্মী এবং আধিকারিকরা লিখেছেন, সেনাবাহিনীর সর্বময় কর্তা রাষ্ট্রপতি। তাই তাঁর দ্বারস্থ হয়েছেন প্রাক্তনীরা। রাজনৈতিক দলের নেতারা যেভাবে সশস্ত্র বাহিনীর অপারেশনের কৃতিত্ব নিতে উঠেপড়ে লেগেছেন তা একদিকে অস্বাভাবিক অন্যদিকে এসব মেনে নেওয়ার কোন প্রশ্ন ওঠে না। এসব বন্ধ হোক বলে রাষ্ট্রপতিকে আর্জি তাদের।

উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের প্রসঙ্গও উঠে এসেছে চিঠিতে। কিছুদিন আগে একটি নির্বাচনী জনসভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে যোগী সেনাবাহিনীকে মোদীজির সেনা বলে অভিহিত করেন। এই মন্তব্যের পর দেশজুড়ে প্রতিবাদের ঝড় ওঠে। এবার সেনা প্রাক্তনীদের একটা অংশও এ ব্যাপারে সরব হলেন।

নির্বাচনের প্রচারমঞ্চে এর আগে সেনার অপারেশনের ছবি ব্যবহার এবং সেনা উর্দি পড়ে ভোট প্রচারের অভিযোগ উঠেছে বিজেপি নেতা মনোজ তিওয়ারির বিরুদ্ধে। প্রচারে সেনার ছবি ব্যবহারের অভিযোগ উঠেছে সদ্য কংগ্রেসে যোগ দেওয়া অভিনেতা উর্মিলার বিরুদ্ধেও।

চিঠিতে সাক্ষর করেছেন অবসরপ্রাপ্ত জেনারেল শঙ্কর রায়চৌধুরী, অবসরপ্রাপ্ত জেনারেল এস এফ রডরিগেজ এবং অবসরপ্রাপ্ত জেনারেল দীপক কাপুর, প্রাক্তন বায়ুসেনা প্রধান এন সি সুরি, চারজন অবসরপ্রাপ্ত নৌসেনা প্রধান সহ ১৫৬ জন প্রাক্তন সেনা কর্মী ও আধিকারিক।

Comments
Loading...