TRP জালিয়াতি মামলায় অর্ণবদের বিরুদ্ধে ১,৯১২ পাতার চার্জশিট মুম্বাই পুলিশের

TRP জালিয়াতি মামলার চার্জশিটে রিপাবলিক টিভির অর্ণব গোস্বামীর নাম। মঙ্গলবার মুম্বই পুলিশ তৃতীয় চার্জশিট পেশ করে।

১,৯১২ পাতার অতিরিক্ত চার্জশিটে রিপাবলিক টিভির কর্মীদের কথোপকথনের কিছু স্ক্রিন শট রেখেছেন তদন্তকারীরা। চার্জশিটে তদন্তকারীদের দাবি, ওই চ্যাট থেকে পরিষ্কার ARG Outliers Media Private Limited এর ম্যানেজিং ডিরেক্টর অর্ণব গোস্বামীর সম্মতিতে টিআরপি দুর্নীতি হয়েছে।

গত মে মাসে এই মামলায় রিপাবলিক টিভির কর্ণধার অর্ণব গোস্বামীকে একটি প্রশ্নপত্র পাঠায় মুম্বই পুলিশ। প্রশ্নপত্রে ৬৮ টি প্রশ্ন করা হয় সাংবাদিক অর্ণব গোস্বামীকে। যার উত্তরে অর্ণব জানান, রিপালবিক টিভিতে ১ হাজারেরও বেশি কর্মী কাজ করেন। চ্যানেলের সব সিদ্ধান্ত তিনি একা নেন না। অর্ণব গোস্বামী দাবি করেন, শুধুমাত্র এডিটোরিয়াল বিভাগ দেখভাল করেন তিনি।

কিছু সুনির্দিষ্ট অভিযোগ এবং হোয়াটসআপ চ্যাট স্ক্রিন শটের ভিত্তিতে Telecom Regulatory Authority of India (TRAI) এর কাছে TRP জালিয়াতি সংক্রান্ত অভিযোগ জমা পড়ে রিপাবলিক টিভি সহ আরও কয়েকটি টিভি চ্যানেলের বিরুদ্ধে। বর্তমানে যার তদন্ত করছে মুম্বই পুলিশ।

২৪ মে লিখিত ভাবে অর্ণব গোস্বামী তদন্তকারীদের জানান, TRP সংক্রান্ত বিষয়গুলি দেখে চ্যানেলের ডিস্ট্রিবিউশন টিম। এর সঙ্গে এডিটোরিয়াল ডিপার্টমেন্টের কোনও সম্পর্ক নেই।

অতিরিক্ত চার্জশিটে অর্ণব গোস্বামীর সঙ্গে আরও পাঁচজন রিপাবলিক টিভির শীর্ষস্থানীয় কর্তার নাম রয়েছে।

২৪ মে অর্ণব গোস্বামী লিখিত জবাবে তদন্তকারীদের জানিয়েছিলেন, যে ধরনের অভিযোগ তাঁর বিরুদ্ধে করা হচ্ছে সে কাজে তিনি যুক্ত নন। চ্যানেলের ব্রডকাস্টিংয়ের বিষয়গুলি দেখে ডিস্ট্রিবিউশন টিম। তিনি বা এডিটোরিয়াল ডিপার্টমেন্টের কেউ এর সঙ্গে যুক্ত নয়।

কয়েকমাস আগেই অর্ণব গোস্বামী এবং রিপাবলিক টিভির বিরুদ্ধে TRAI এর কাছে অভিযোগ জমা পড়ে। টিআরপি কারচুপি করে অতিরিক্ত ভিউয়ার দেখানোর অভিযোগ ওঠে অর্ণবের চ্যানেলের বিরুদ্ধে। এই মামলায় বার্ক কর্তা পার্থ দাশগুপ্তকে হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করে পুলিশ। তাঁর সঙ্গে অর্ণবের চ্যাটের কিছু স্ক্রিনশট প্রকাশ্যে আসে। যার জেরে তোলপাড় পড়ে যায় সারা দেশে।

ওই ভাইরাল হওয়া চ্যাট প্রসঙ্গেও অর্ণব জানান, কথোপকথনের কিছু নির্বাচিত অংশ প্রকাশ্যে আনা হয়েছে তাঁর সম্মানহানি করার জন্য এবং তদন্তে রাজনৈতিক রং লাগানোর জন্য। সেই অঙ্গে তিনি এও বলেন, ওই চ্যাট কখনই তদন্তের প্রমান হিসেবে ব্যবহৃত হতে পারে না।

পুলিশের দাবি, চ্যাটটি যে অর্ণব গোস্বামীর তা তিনি স্বীকার করেছেন।

লিখিত উত্তরে অর্ণব গোস্বামী আরও দাবি করেছিলেন, টিআরপি জালিয়াতির সঙ্গে কোনভাবেই রিপাবলিক টিভির কেউ জড়িয়ে নেই। তাঁদের নিউজ কন্টেন্ট ভালো তাই অল্পদিনে চ্যানেল শীর্ষ স্থানে গিয়েছে। এর জেরে অনেকের সমস্যা হচ্ছে। NBA কেও তিনি কটাক্ষ করে লিখিত উত্তরে জানিয়েছিলেন, NBA এর সদস্য নয় এমন প্রত্যেকটি চ্যানেলকেই মাঝে মাঝে নোটিস পাঠায়।

মুম্বই পুলিশের অতিরিক্ত চার্জশিটে অর্ণব গোস্বামীর নাম নতুন করে নাড়াচাড়া ফেলে দিয়েছে টিভি নিউজের টালমাটাল বাজারকে।

Comments
Loading...