পাক সেনার সাংবাদিক বৈঠক দেখানোয় তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রকের নোটিস এবিপি নিউজ ও তিরঙ্গা টিভিকে

পুলওয়ামায় ফিদায়েঁ জঙ্গি হামলার প্রেক্ষিতে কেন্দ্রীয় তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রকের তরফে দেশের নিউজ চ্যানেলগুলোর উদ্দেশে এক নির্দেশিকা জারি করে নির্দিষ্ট করে বলা হয়েছিল, অত্যন্ত সতর্কতার সঙ্গে খবর সম্প্রচার করতে হবে। কোনও প্ররোচনামূলক খবর যা দেশের আইন-শৃঙ্খলার অবনতি ঘটায় বা দেশের অখণ্ডতার বিরোধী কোনও খবর সম্প্রচার করা যাবে না। এই প্রেক্ষিতে পাকিস্তান সেনার মুখপাত্রের সাংবাদিক বৈঠক সম্প্রচার করে তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রকের নির্দেশ অমান্য করার অভিযোগ উঠল দুটি নিউজ চ্যানেলের বিরুদ্ধে।
প্রোগ্রাম কোডের দুটি ধারা লঙ্ঘন করার অভিযোগে গত ২৩ শে ফেব্রুয়ারি এবিপি নিউজ ও তিরঙ্গা টিভিকে নোটিস পাঠায় তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রক।
পুলওয়ামা জঙ্গি হামলার পরিপ্রেক্ষিতে গত ২২ শে ফেব্রুয়ারি একটি সাংবাদিক বৈঠক করেন পাকিস্তান সেনাবাহিনীর মুখপাত্র মেজর জেনারেল আসিফ গাফুর। সেই সাংবাদিক বৈঠক বিনা বিরতিতে ২০ মিনিট ৪৫ সেকেন্ড সম্প্রচার করায় তিরঙ্গা টিভি নিউজ চ্যানেলকে শো-কজ নোটিস পাঠায় তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রক। একই অভিযোগ এবিপি নিউজের বিরুদ্ধেও।
১৯৯৫ সালের কেবল টেলিভিশন নেটওয়ার্ক (রেগুলেশন) আইনের ধারা ৬(১)(ই) অনুযায়ী, হিংসায় প্ররোচনা দেয় বা দেশের আইন-শৃঙ্খলার বিরোধী অথবা দেশ বিরোধী কোন অনুষ্ঠান সম্প্রচার করা যাবে না।
ধারা ৬ (১)(এইচ) অনুযায়ী ভারতের অখণ্ডতা বিরোধী কোনও অনুষ্ঠান সম্প্রচার করা যাবে না। আর এই দুটি বিধি অমান্য করায় এবিপি নিউজ ও তিরঙ্গা টিভিকে নোটিস পাঠানো হল বলে জানা গিয়েছে।
এই নোটিস প্রসঙ্গে তিরঙ্গা টিভির মালিক ‘ভিকন মিডিয়া অ্যান্ড ব্রডকাস্টিং’-এর প্রেসিডেন্ট দীপক চৌধুরীর প্রতিক্রিয়া, দেশের অন্যান্য মিডিয়ার মতো তাঁরাও জঙ্গি হানার ঘটনার বিপক্ষে এবং দৃঢ়ভাবে দেশের সেনাবাহিনীকে সমর্থন করেন। জেনারেল গাফুরের ওই সাংবাদিক বৈঠক তাঁদের চ্যানেলের তরফে একটি নিউজ কভারেজ মাত্র। ওই বৈঠকে জেনারেল গাফুর যা মন্তব্য করেন তা তাদের চ্যানেল সমর্থন করে না বলেও জানান দীপক চৌধুরী। এবিপি নিউজের তরফে অবশ্য এখনও এবিষয়ে কোনও প্রতিক্রিয়া মেলেনি। তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রকের এই নোটিস ইস্যুর সাত দিনের মধ্যে ব্যাখ্যা দিতে হবে দুটি নিউজ চ্যানেলকে।

Comments
Loading...