সেলিম: অমিত শাহ বিহারে না গিয়ে বাংলায় এসেছেন বিজেপির দ্বন্দ্ব মেটাতে! আমেরিকার রিপাবলিকানদের মতো অবস্থা রিপাবলিক টিভির

‘যেমন আমেরিকায় রিপাবলিকদের অবস্থা হয়েছে, এদেশে রিপাবলিক টিভি চ্যানেলের দশা তেমনই,” কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী অমিত শাহের বাংলা সফরের সমালোচনা করতে গিয়ে এ দেশের সংবাদমাধ্যমের একাংশের তুলোধোনা করলেন সিপিএমের পলিটব্যুরো সদস্য মহম্মদ সেলিম।

বৃহস্পতিবার বঙ্গ সফরে এসে বাঁকুড়ার এক আদিবাসী বাড়িতে মধ্যাহ্নভোজন করেছিলেন অমিত শাহ। যা নিয়ে শুক্রবার সাংবাদিক বৈঠক থেকে মহম্মদ সেলিমের কটাক্ষ, মানুষের সাধারণ চাহিদা, অভাব-অভিযোগ সরিয়ে নিজেদের ভোটের প্রয়োজনে আদিবাসী বাড়িতে গিয়ে খাবার খেতে হয় বিজেপি নেতাদের। সেলিম বলেন, এই ‘প্রদর্শনীমূলক ভোজনের’ খবর বাজারজাত করতে গিয়ে নিজেদের জাত খুইয়েছে ভারতীয় মিডিয়া। এরপরই সিপিএমের প্রাক্তন সাংসদের কটাক্ষ, আমেরিকায় রিপাবলিকদের অবস্থা যেমনটি, এদেশে রিপাবলিক টিভির অবস্থাও তেমন। প্রসঙ্গত, রিপাবলিক টিভির কর্ণধার ও সাংবাদিক অর্ণব গোস্বামীর গ্রেফতারিতে বিজেপি নেতা মন্ত্রীদের প্রতিবাদ ও সমালোচনাকে কটাক্ষ করে একদিন আগেই ট্যুইট করেছিলেন মহম্মদ সেলিম।

এদিন অমিত শাহের সফরকে নিশানা করতে গিয়ে তৃণমূল-বিজেপিকে একযোগে কটাক্ষ করেন সিপিএম নেতা। তাঁর কথায়, এরাজ্যে মমতা-মুকুলরা রাজনীতিকে ব্যবসায় পরিণত করেছেন। এখন সেই ব্যবসা করতে এসেছেন অমিত শাহ। এখন যাঁদের নিয়ে বিজেপি বাংলায় রাজনীতি করছে, তারা কালীঘাটের গুদাম থেকে নেওয়া বলে কটাক্ষ করেন সেলিম। অমিত শাহের দক্ষিণেশ্বর সফরকে কটাক্ষ করেও সিপিএম নেতা বলেন, ধর্ম, ধর্মীয় আবেগ, উৎসব ইত্যাদিকে রাজনীতির আঙিনা থেকে দূরে রাখা উচিত। কিন্তু যে রাজনীতি পাকিস্তান করেছে, ধর্ম নিয়ে এ দেশে সেই রাজনীতি করছেন মোদী-শাহরা। তিনি বলেন, গত ১০ বছরে একটি প্রতিশ্রতি রক্ষা করেনি মোদী-শাহরা। মোদী-শাহ-বিজেপি মিথ্যাচারের ডিগ্রি করেছেন বলে মন্তব্য সেলিমের। তিনি আরও বলেন, সরকারি খরচে বাংলায় দলীয় কর্মসূচি করতে এসেছেন অমিত শাহ। যে অমিত শাহ বিধানসভা ভোটের সময় বিহার যাননি, তিনি বঙ্গ বিজেপির অন্তর্দ্বন্দ্ব মেটাতে ছুটে এসেছেন বলে মন্তব্য করেন সিপিএম নেতা মহম্মদ সেলিম। কেন্দ্রে মোদী সরকারের আমলে কেন একটিও কেন্দ্রীয় প্রকল্প বাংলায় হল না, তা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন সিপিএমের পলিটব্যুরো সদস্য সেলিম।

 

Comments
Loading...