তৃণমূলের লাগাতার বহিরাগত আক্রমণের জবাব দিলেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। বললেন, ভিন রাজ্যে কর্মসূত্রে বহু বাঙালি থাকেন। সেই রাজ্যের লোকেরা বাঙালিদের বহিরাগত বলে স্লোগান দিয়ে বের করে দিলে কী হবে? উনি সবার চাকরির ব্যবস্থা করতে পারবেন? রাজনৈতিক লাভের জন্য কেন বাঙালিদের বিপদের মুখে ঠেলে দিচ্ছেন? পাশাপাশি প্রশান্ত কিশোরের নাম করেও তাঁকে কটাক্ষ করেন তিনি।
শেষ কিছুদিন ধরে বিজেপির কেন্দ্রীয় ইলেকশন টিমকে কার্যত বহিরাগতদের রাজ্য সফর বলে চিহ্নিত করে একের পর এক আক্রমণ শানিয়ে গিয়েছে তৃণমূল। এদিন তার জবাব দিলেন দিলীপ ঘোষ।
শুক্রবার রাজ্যের মন্ত্রী ব্রাত্য বসু বিজেপিকে উত্তর ও পশ্চিম ভারতের দল বলে চিহ্নিত করেছিলেন। বলেছিলেন, যেভাবে নেতাজিকে উত্তর ও পশ্চিম ভারতীয়দের বিরোধিতার মুখে পড়তে হয়েছিল, তেমনই হচ্ছে মমতা ব্যানার্জিকেও। ব্রাত্য বসুর দাবি, বহিরাগতদের দিয়ে বাঙালিকে শাসন করতে চাইছে বিজেপি। এর উত্তরে দিলীপ ঘোষ বলেন, স্বাধীনতা আন্দোলনে যে বাঙালিরা প্রাণ দিয়েছিলেন, তাঁরা কি শুধু বাংলার কথা ভেবে লড়াই করছিলেন? গোটা দেশকেই তো তাঁরা প্রতিনিধিত্ব করেছেন। দিলীপ ঘোষের পাল্টা প্রশ্ন, মুখ্যমন্ত্রী বাইরের লোকের থেকে সতর্ক থাকতে বলেছেন। যাঁকে রাজ্য চালানোর ভার দিয়েছেন, তিনিও তো বাইরের লোক! তাঁর থেকেই সতর্ক করে দিলেন নাকি? প্রশান্ত কিশোরের নাম না করে কটাক্ষ বিজেপির রাজ্য সভাপতির। তৃণমূলের দুই প্রাক্তন সাংসদ কেডি সিংহ ও হাসান ইমরানের নাম করে দিলীপের মন্তব্য, এঁরা বাংলার নন, তাহলে তৃণমূল তাঁদের সংসদ করেছিল কেন? তৃণমূলের লোকেরা বাইরের রাজ্যে ভোটে চাইতে যান, তখন ওখানকার লোকেরা তৃণমূলকে বহিরাগত বলে স্লোগান দিলে কি ভাল হবে?
বাংলায় আগে এরকম ছিল না বলে দাবি করেন দিলীপ ঘোষ। মমতা ব্যানার্জি নিজের রাজনৈতিক লাভের জন্য গোটা দেশে বাঙালিদের বিপদের মধ্যে ফেলে দিচ্ছেন। বাইরের রাজ্য থেকে সব বাঙালি ফিরে এলে চাকরি দিতে পারবেন তিনি?

ধারাবাহিকভাবে পাশে থাকার জন্য The Bengal Story র পাঠকদের ধন্যবাদ। আমরা যে ধরনের খবর করি, তা আরও ভালোভাবে করতে আপনাদের সাহায্য আমাদের উৎসাহিত করবে।

Login Support us

You may also like

Mamata Banerjee Singur Movement
Mamata Banerjee Finalising