কংগ্রেসের অভিষেক ব্যানার্জির প্রচারে সল্টলেকে ঝড় দীপ্সিতা-সুশান্ত ঘোষ জুটির

বিধাননগরের কংগ্রেস প্রার্থী অভিষেক ব্যানার্জির সমর্থনে মঙ্গলবার সল্টলেকের EE ব্লকে সভা করেন প্রাক্তন বিধায়ক তথা সিপিএম নেতা সুশান্ত ঘোষ, কংগ্রেস নেতা আইনজীবী অরুনাভ ঘোষ এবং বালির সিপিএম প্রার্থী দীপ্সিতা ধর।

বক্তব্যের শুরু থেকেই তৃণমূল-বিজেপিকে একযোগে তুলোধোনা করেন সিপিএমের তরুণ মুখ। ১০ এপ্রিল শীতলকুচির ঘটনা নিয়ে দু’পক্ষকে আক্রমণ করে বলেন, পাঁচ জনের মৃত্যু নিয়ে হিন্দু-মুসলিম করছে তৃণমূল-বিজেপি। তৃণমূল নেত্রী প্রকাশ্য জনসভা থেকে বলছেন, মা বোনেরা হাতা নিয়ে বেরিয়ে পড়ুন। কেন্দ্রীয় বাহিনীকে ঘেরাও করুন। দীপ্সিতার তোপ, আপনারা কে ভোট করানোর? ভোট করানোর জন্য কমিশন আছেন।

সেই সঙ্গে দিলীপ ঘোষদের মন্তব্যের প্রসঙ্গ টেনে এনে বলেন, বিজেপি নেতারা বলেছেন বাড়াবাড়ি করলে জায়গায় জায়গায় শীতলকুচি হবে, কেন্দ্রীয় বাহিনীকে বলছে, চারজন নয় আটজনকে গুলি করুন। গেরুয়া শিবিরকে একহাত নিয়ে দীপ্সিতা ধর বলেন, কেন্দ্রীয় বাহিনী কী বিজেপির পৈতৃক সম্পত্তি?

এদিন দলবদল নিয়েও ঝাঁঝালো আক্রমণ করেন বিজেপিকে। তাঁর কথায়, বিজেপি নেতারা বলছেন আমাদের ভোট দিন, তৃণমূলকে টাইট করে দেব। দীপ্সিতার খোঁচা, কোন তৃণমূলকে টাইট দেবেন? বিজেপির শুভেন্দু অধিকারীকে দিয়ে তৃণমূলের শুভেন্দু অধিকারীকে টাইট দেবেন?

তাৎপর্যপূর্ণ ভাবে এদিন জেএনইউ-এর ছাত্র নেত্রী No vote To BJP মঞ্চকেও একহাত নেন। একদল বলছে বিজেপিকে একটিও ভোট নয়, যেখানে যে দল শক্তিশালী তাদের ভোট দিন। এর মানে কী তৃণমূল কে ভোট দিতে হবে? কী গ্যারেন্টি আছে কাল ওই জয়ী তৃণমূল নেতা বিজেপিতে চলে যাবেন না? মন্তব্য দীপ্সিতার। বাম বা কংগ্রেসের ক্ষেত্রে কি এই বিপদ নেই? উত্তর মেলেনি।

এদিন কংগ্রেস নেতা অরুনাভ ঘোষও দুর্নীতি নিয়ে চাঁচাছোলা ভাষায় তৃণমূলকে আক্রমণ করেন। তাঁর কটাক্ষ, তৃণমূলের সব কাউন্সিলর ভোটে জিতে ছয় মাসের মধ্যে স্করপিও গাড়ি চড়ছে, রোজগারের কথা জিজ্ঞেস করলে বলতে পারবেন না।

সভায় সিপিএম নেতা সুশান্ত ঘোষও তাঁর স্বভাবসিদ্ধ ঢঙে তৃণমূলের সমালোচনা করেন। ১ এপ্রিল নন্দীগ্রামের ভোটে বয়ালের বুথের কথা উল্লেখ করে বলেন, উনি এমন একজন প্রার্থী যে নিজের কেন্দ্রের বুথেই ঘেরাও হয়ে যান!

Comments
Loading...