পাশ হয়ে গিয়েছে কৃষি বিল। বাকি শুধু রাষ্ট্রপতির সইয়ের। বিলের বিরুদ্ধে ইতিমধ্যেই দেশজুড়ে আন্দোলন শুরু করেছে বিরোধীরা। তবে কেরলের বাম সরকার কেবল রাস্তায় নেমে আন্দোলন নয়, এই বিলের সংসদে বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্টে মামলা করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

এর আগে আদানি গোষ্ঠীকে বিমান পরিচালনার ভার দেওয়ায় কেন্দ্রের বিরুদ্ধে শীর্ষ আদালতে গিয়েছিল কেরল সরকার। নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল নিয়েও আদালতের দিকে পা বাড়িয়েছিল তারা। এবার কৃষি বিল নিয়েও কেন্দ্রের মোদী সরকারের বিরুদ্ধে সুপ্রিম কোর্টে ফের মামলা করছে পিনারাই বিজয়নের সরকার।

তাদের দাবি, দেশের সংবিধানে কেন্দ্র ও রাজ্যের সম্পর্কের যে কথা বলা হয়েছে, কৃষি বিল তার পরিপন্থী। কৃষি যেহেতু যৌথ তালিকায় আছে, সেখানে রাজ্যের সঙ্গে আলোচনা না করে একপেশে ভাবে এই বিল পাশ করানোর সিদ্ধান্ত বেআইনি।

কয়েক দিন আগেই ফেসবুক পোস্টে কেরলের মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন হুঁশিয়ারি দিয়েছিলেন, কেন্দ্রীয় সরকারকে বাধ্য করা হবে এই বিল প্রত্যাহার করতে। বলেছিলেন, কেরলই শুধু নয় সারা দেশের কৃষক এর শেষ দেখে ছাড়বেন। বুধবার জানা গেল দু’এক দিনের মধ্যেই শীর্ষ আদালতে এই বিলের বিরুদ্ধে পিটিশন দাখিল করতে চলেছে কেরলের বাম সরকার। তার আগে এই সংক্রান্ত আইনি পরামর্শ সেরে নিয়েছেন কেরলের কৃষিমন্ত্রী সুনীল কুমার। বুধবার রাজ্য মন্ত্রিসভার বৈঠকে তা নিয়ে নিয়ে আলোচনা হয়। সেখানেই সুপ্রিম কোর্টে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। মোদী সরকারের এই কৃষি বিল যুক্তরাষ্ট্রীয় কাঠামোয় আঘাত করেছে বলে মনে করছে কেরল সরকার।

এ নিয়ে কেরলের কৃষিমন্ত্রী জানান, রাজ্যগুলির সঙ্গে কথা না বলে এই বিল আনা হয়েছে। এমনকী কৃষক সংগঠনগুলির সঙ্গেও কোনও আলোচনা করা হয়নি। তাঁর অভিযোগ, এই বিল থেকে লাভবান হবেন কেবল পুঁজিবাদীরা।

প্রসঙ্গত, কৃষি ক্ষেত্রে সংস্কারের জন্য তিনটি বিল সংসদে বিরোধীদের প্রবল আপত্তি সত্ত্বেও পাশ করিয়ে নিয়েছে মোদী সরকার। তাদের যুক্তি, এই আইনে দেশের চাষীদের স্বার্থ সুরক্ষিত হবে, তাঁরা নিজেদের পণ্যের জন্য আরও ভালো দাম পাবেন।

 

 

ধারাবাহিকভাবে পাশে থাকার জন্য The Bengal Story র পাঠকদের ধন্যবাদ। আমরা যে ধরনের খবর করি, তা আরও ভালোভাবে করতে আপনাদের সাহায্য আমাদের উৎসাহিত করবে।

Login Support us