সাবরীমালা মন্দিরে মহিলাদের প্রবেশের জন্য কেরলে সিপিএম সরকারের ডাকা সর্বদলীয় বৈঠক থেকে ওয়াক আউট বিজেপি-কংগ্রেসের

বিজেপির বিরুদ্ধে সাম্প্রদায়িকতা, বৈষম্যের অভিযোগকে সামনে রেখে একদিকে লোকসভা ভোটে লড়ার ডাক দিচ্ছেন রাহুল গান্ধী। আর অন্যদিকে, সাবরিমালা মন্দিরে মহিলাদের প্রবেশাধিকারের প্রশ্নে কেরলের মুখ্যমন্ত্রীর ডাকা সর্বদলীয় বৈঠক থেকে বিজেপির সঙ্গে একযোগে ওয়াক আউট করছে কংগ্রেস। এমন ঘটনাই ঘটল বৃহস্পতিবার কেরলে। যার ফলে প্রশ্ন উঠতে শুরু করেছে, সাবরিমালা নিয়ে সুপ্রিম কোর্টের ঐতিহাসিক রায়ের পর বিজেপি-আরএসএস যেভাবে কেরলে এর প্রতিবাদে নেমেছে, কংগ্রেস কি তার শরিকে পরিণত হতে চলেছে?
প্রসঙ্গত, সুপ্রিম কোর্টের এই ঐতিহাসিক রায়ের পরই তার বিরোধিতায় নামে সাবরিমালা মন্দির কর্তৃপক্ষ, বিজেপি-আরএসএস এবং সেই রাজ্যের একাধিক হিন্দু সংগঠন। ১০ থেকে ৫০ বছর বয়সী মহিলাদের মন্দিরে ঢুকতে দেওয়া হবে না বলে ফতোয়া দেয় তারা। মন্দিরে প্রবেশ নিয়ে আইন-শৃঙ্খলার অবনতি হয়। কড়া হাতে পরিস্থিতি মোকাবিলায় নামে পিনারাই বিজয়নের নেতৃত্বে সিপিএম সরকার। যাঁরা মন্দিরে মহিলাদের প্রবেশে বাধা দিচ্ছিলেন, তাঁদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থাও নেওয়া হয়। যার জেরে কেরলে সিপিএম এবং বিজেপির মধ্যে ব্যাপক রাজনৈতিক চাপানউতোরও শুরু হয়।
আগামী ১৭ ই নভেম্বর টানা দু’মাসের জন্য সাবরিমালা মন্দির খোলার কথা। সেই সময়ও মহিলাদের ঢুকতে দেওয়া হবে না বলে ইতিমধ্যেই হুমকি দিয়েছে মন্দির কর্তৃপক্ষ। এই পরিস্থিতিতে কী করা হবে তা নিয়ে বৃহস্পতিবার সর্বদলীয় মিটিং ডেকেছিলেন কেরলের মুখ্যমন্ত্রী পিনারাই বিজয়ন। কেরালার সিপিএম সরকারের বক্তব্য, দীর্ঘদিন ধরে চলে আসা মন্দিরের ঐতিহ্য নিয়ে সাধারণ মানুষের ভাবাবেগের বিষয়টি থাকলেও, সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ মানতে রাজ্য সরকার বাধ্য। তাই মহিলারা মন্দিরে যেতে চাইলে তা নিশ্চিত করা রাজ্য প্রশাসনের এক্তিয়ারের মধ্যে পড়ে। সেই কারণেই এদিন সর্বদলীয় বৈঠক ডাকা হয়েছিল। কিন্তু সেই বৈঠকে যোগ দিয়েও ওয়াক আউট করে বিজেপি এবং কংগ্রেস। ইতিমধ্যেই কেরলে সুপ্রিম কোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে সাবরিমালা বাঁচাও আন্দোলনে নেমেছে বিজেপি। তাদের পথ ধরে সুপ্রিম কোর্টের রায়ের বিরুদ্ধে কেরলে আন্দোলনে নেমেছে কংগ্রেসও।
সূত্রের খবর, এদিন সর্বদলীয় বৈঠকে কেরলের সিপিএম মুখ্যমন্ত্রী বলেন, সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ মানতে তাঁরা বাধ্য। দরকারে, মহিলাদের মন্দিরে প্রবেশের পৃথক সময় ধার্য করা হোক। কিন্তু তাঁর কথা মানতে রাজি নয় বিজেপি এবং কংগ্রেস। দু’দলেরই মত মহিলাদের এই মন্দিরে প্রবেশের বিরুদ্ধে। এই বিষয়কে কেন্দ্র করে মিটিংয়ে মতবিরোধ হয়, যার জেরে ওয়াক আউট করে মিটিং থেকে বেরিয়ে যান বিজেপি এবং কংগ্রেস প্রতিনিধিরা।

Comments
Loading...