গালওয়ানে মৃত্যু অন্তত ৪৫ জন PLA সেনার! দাবি রুশ সংবাদমাধ্যমের, চিনে নিষিদ্ধ BBC

গত বছর জুনে গালওয়ান উপত্যকায় ভারত-চিন ফেস অফে অন্তত ৪৫ জন PLA সেনা নিহত হয়েছিল। চাঞ্চল্যকর দাবি রাশিয়ার সংবাদ সংস্থা TASS এর। সম্প্রতি চিনা প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের পক্ষ থেকে দাবি করা হয়েছিল, গালওয়ান ভ্যালিতে প্যানগং লেকের কাছে পিছু হটছে চিনা সেনা। এই প্রসঙ্গেই রাশিয়ান সংবাদ সংস্থার এই খবর।

গত বছর মে-জুন মাসে ভারত ও চিনের সেনার মধ্যে যে রক্তক্ষয়ী হাতাহাতির ঘটনা ঘটেছিল, তাতে ২০ জন ভারতীয় সেনা নিহত হয়। কিন্তু PLA এর দিকে কত হতাহত তা জানায়নি চিন। ফেব্রুয়ারি মাসে জানা গেল ফেস অফে অন্তত ৪৫ জন চিনা সেনা নিহত হয়।

প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংহ সংসদে লাদাখের প্যাংগং হ্রদ থেকে উভয়পক্ষের সেনা সরানোর কথা জানিয়েছেন। আর এর মধ্যেই রুশ সংবাদ সংস্থা TASS জানিয়ে দিল, নয় দফা আলোচনার পর সেনা প্রত্যাহারের জন্য সমঝোতা হয়। TASS এর দাবি, পিপলস লিবারেশন আর্মি (পিএলএ)-র ৪৫ জন সেনা গালওয়ান সংঘর্ষে নিহত হয়েছিলেন। যদিও TASS এর দাবি মানতে চায়নি চিন। তাদের দাবি, কিছু গণমাধ্যম সংঘর্ষে চিনা সেনাদের হতাহতের সংখ্যা প্রকাশ্যে এনেছে। কিন্তু এটি ভুয়ো খবর।

[আরও পড়ুন- আরও মহার্ঘ্য বিমান-সফর, ৩০% বৃদ্ধি বিমান ভাড়ায়]

গত বছর জুন মাসে ভারত-চিন সংঘর্ষে ২০ জন ভারতীয় সেনা নিহত হয়েছিল। কিন্তু কতজন চিনা সেনা মারা গিয়েছে, সেই বিষয়ে কিছু জানায়নি চিন। এবার সংঘর্ষে চিনা সৈন্যের নিহত হওয়ার সংখ্যা জানিয়ে দিল রাশিয়ান সংবাদ সংস্থা।

অন্যদিকে মিথ্যে খবর সম্প্রচারের অভিযোগে বিবিসির সম্প্রচার বন্ধ করে দিয়েছে চিন। বেজিং দাবি করেছে বিবিসি চিনের সম্পর্কে মিথ্যা খবর প্রচার করছে। করোনা থেকে শুরু করে চিনে সংখ্যালঘুদের প্রতি অত্যাচার নিয়ে ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম ভুয়ো খবর করেছে বলে অভিযোগ করেছে মাওয়ের দেশ। বিবিসির তরফে এক বিবৃতি দিয়ে জানানো হয়েছে, বিশ্বের অন্যতম ভরসাযোগ্য সংবাদমাধ্যমকে নিষিদ্ধ ঘোষণা করায় তারা দুঃখিত। সব সময় সত্য এবং নিরপেক্ষ খবর প্রকাশই তাদের উদ্দেশ্য বলে জানিয়েছে বিবিসি। উল্লেখ্য, গত সপ্তাহেই চিনের কিছু সংবাদ মাধ্যমকে নিষিদ্ধ করেছিল ব্রিটেন। এবার দেশে বিবিসির সম্প্রচার বন্ধ করে দিল লাল চিন।

 

Comments
Loading...