পাহাড়ে দ্বন্দ্ব মেটাতে গুরুং-তামাংয়ের সঙ্গে বৈঠকে অভিষেক-পিকে? শিলিগুড়ি গেলেন গুরুং

উত্তরবঙ্গ সফরে সোমবার দুপুরে শিলিগুড়ি পৌঁছবেন অভিষেক ব্যানার্জি। শিলিগুড়িতেই থাকবেন পরবর্তী ৪ দিন। এই সময় উত্তরের বিভিন্ন জেলায় সভা ও কর্মিসভা করবেন যুব তৃণমূল সভাপতি। শোনা যাচ্ছে উত্তরবঙ্গ সফরে গোর্খা জনমুক্তি মোর্চার যুযুধান দুই পক্ষকে নিয়েও বৈঠকে বসবেন অভিষেক ব্যানার্জি। থাকতে পারেন পিকেও।

রবিবার দুপুরে দার্জিলিং থেকে শিলিগুড়ি নেমে আসেন বিমল গুরুং। তখনই প্রশ্ন ওঠে, পাহাড় ছেড়ে সমতলে কেন গুরুং? রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকরা বলছেন সোমবার দুপুরে শিলিগুড়ি আসছেন অভিষেক ব্যানার্জি। তাঁর সঙ্গে কথা বলতেই পাহাড় ছেড়ে শিলিগুড়িতে গুরুং। তৃণমূল সূত্রে খবর, পাহাড়ে মোর্চার দ্বন্দ্ব মেটাতে বিমল গুরুং ও বিনয় তামাং-অনীত থাপা শিবিরের নেতাদের ডেকে পাঠানো হতে পারে।

তৃণমূলের দার্জিলিং জেলা কমিটি তৈরি করে দিয়ে যাবেন অভিষেক ব্যানার্জি বলে আপাতত জানা যাচ্ছে। গত বছরের ১২ অক্টোবর শিলিগুড়ি এসে মাল্লাগুড়ির একটি হোটেলে উত্তরের তৃণমূল নেতৃত্বের সঙ্গে বৈঠক করেছিলেন অভিষেক ও প্রশান্ত কিশোর। তারপর ফের আসছেন তাঁরা। বিধানসভা ভোটের প্রস্তুতি খতিয়ে দেখবেন তাঁরা।

রাজনৈতিক মহল মনে করছে, বিমল গুরুং পাহাড়ে ফিরে আসায় দার্জিলিঙের রাজনীতিতে অনেক পরিবর্তন হয়েছে। গুরুং শিবিরের বন্ধ হয়ে যাওয়া একের পর এক পার্টি অফিস খুলছে। পাহাড়ের রাশ হাতে নিতে শুরু করে দিয়েছে। এদিকে জায়গা ছাড়তে নারাজ বিনয় তামাং-অনীত থাপারা। আগামী ৭ জানুয়ারি কালিম্পংয়ে সভা করতে চলেছেন বিমল গুরুং। কালিম্পং বিনয় তামাঙদের শক্ত ঘাঁটি। গুরুঙ্গের সভা নিয়ে তাই উত্তেজনা আছে পাহাড়ে।

এই অবস্থার মধ্যে শিলিগুড়ি নেমে এসেছেন বিমল গুরুং। সেভক রোডের একটি হোটেলে ঘাঁটি গেড়েছেন তিনি। সোমবার শিলিগুড়ি পৌঁছবেন অভিষেক ব্যানার্জি। তার আগে গুরুঙ্গের শিলিগুড়িতে চলে আসা জল্পনায় ইন্ধন যোগাচ্ছে। রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকরা মনে করছেন, বিমল ও বিনয় শিবিরকে এক হয়ে কাজ করার কথা বলতে পারেন অভিষেক। তবে দুই পক্ষকে মুখোমুখি বসিয়ে সমস্যা সমাধানের চেষ্টা হবে কি? তা জানা যায়নি।

Comments
Loading...