অমিত শাহের ডেপুটি বাংলাদেশি নাগরিক? কংগ্রেস নেতার চিঠি শেয়ার করে বিস্ফোরক অভিযোগ তৃণমূলের

অমিত শাহের ডেপুটি নিশীথ একজন বাংলাদেশী নাগরিক। শনিবার ট্যুটারে কংগ্রেস সাংসদের প্রধানমন্ত্রীকে লেখা একটি চিঠি শেয়ার করে এমনই বিস্ফোরক দাবি করলেন রাজ্যের মন্ত্রী ইন্দ্রনীল সেন।

রাজ্যসভার সাংসদ তথা আসাম কংগ্রেসের সভাপতি রিপন বোরা প্রধানমন্ত্রীকে একটি চিঠি লিখে অভিযোগ করেন, কেন্দ্রীয় মন্ত্রিসভার নতুন সদস্য স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী নিশীথ প্রামাণিক একজন বাংলাদেশি নাগরিক। এই বিষয়টি নিয়ে যেন সরকার অবিলম্বে তদন্ত করে। আর এই চিঠি ট্যুটারে শেয়ার করে মোদী সরকারকে এক হাত নিলেন ইন্দ্রনীল।

তিনি লেখেন, কেন্দ্রীয় মন্ত্রী নিশীথ প্রামাণিক নাকি একজন বাংলাদেশী নাগরিক! এই তথ্য জেনে আমি রীতিমত বিস্মৃত। একটি গুরুত্বপূর্ণ দফতরের মন্ত্রী একজন বিদেশি এটা দেশের সুরক্ষার ক্ষেত্রে অত্যন্ত উদ্বেগের।

তারপরেই কেন্দ্রীয় সরকারকে ইন্দ্রনীলের কটাক্ষ, মোদী সরকার কীভাবে দেশের সুরক্ষা নিয়ে এরকম গাফিলতির পরিচয় দিল?

উল্লেখ্য কংগ্রেস সাংসদ তাঁর চিঠিতে দাবি করেছেন, ইন্ডিয়া টুডে, রিপাবলিক টিভি ত্রিপুরা ইত্যাদি নিউজ চ্যানেলের প্রতিবেদন বলা হয়েছে, নিশীথ প্রামানিক একজন বাংলাদেশী নাগরিক। বাংলাদেশের গাইবান্ধা জেলার পলাশবাড়ী থানার অন্তর্গত হারিনাথপুর গ্রামে বিজেপি সাংসদের জন্ম। পশ্চিবঙ্গে এসেছিলেন কম্পিউটার নিয়ে পড়াশোনা করতে, পরে উনি এখানে তৃণমূলের সদস্য হন। এবং তারপর তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগদান। প্রথমে কোচবিহার থেকে সাংসদ বর্তমানে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী। মনোনয়ন পত্রে নিশীথ যে ঠিকানা দিয়েছেন, তাও তিনি প্রভাব খাটিয়ে জোগাড় করেছেন বলে প্রতিবেদনে চাঞ্চল্যকর দাবি করা হয়েছে।

কংগ্রেস নেতার আরও অভিযোগ, চ্যানেলগুলির খবর অনুযায়ী, নিশীথের মন্ত্রী হওয়ার ঘটনায় বাংলাদেশে তাঁর বড় ভাই এবং আশেপাশের গ্রামবাসীরা উচ্ছাস প্রকাশ করেছেন।

প্রতিবেদনটি সত্যি হলে এটা খুবই অশঙ্কার যে একজন বিদেশি নাগরিক কেন্দ্রীয় মন্ত্রী হয়েছেন। এই বিষয়টি নিয়ে একটি পূর্ণাঙ্গ তদন্ত হওয়ার উচিত এবং আসল সত্যিটা প্রকাশে আসুক। চিঠিতে দাবি করেছেন কংগ্রেস সাংসদ রিপন বোরা।

মন্ত্ৰী হওয়ার পর বিজেপি সাংসদের শিক্ষাগত যোগ্যতা নিয়েও বিতর্ক তৈরি হয়েছিল। আর এবার তাঁর নাগরিকত্ব নিয়েই প্রশ্ন তুলল বিরোধীরা।

Comments
Loading...