বাবুল সুপ্রিয়র ট্যুইটের তথ্য ভুল, জানাল কলকাতা পুলিশ! তাঁকে কেন ‘মাননীয়’ সম্বোধন করা হয়নি, ক্ষোভ বিজেপি সাংসদের

বাঙুর হাসপাতাল নিয়ে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয়র ট্যুইট করা ভিডিও ভুয়ো, জানাল কলকাতা পুলিশ। প্রতিক্রিয়ায় কলকাতা পুলিশকে রাজ্যের শাসক দলের ‘দলদাস’ বলে কটাক্ষ করে ‘শিষ্টাচার’ শেখালেন বিজেপি সাংসদ।
সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় এম আর বাঙুর হাসপাতালের বলে দাবি করা একটি ভিডিও ভাইরাল হয়। ওই ভিডিওয় এক ব্যক্তির গলা শোনা গিয়েছিল, তাঁর বিরুদ্ধে পুলিশ অভিযোগ দায়ের করেছে বলেও সোশ্যাল মিডিয়ায় দাবি করা হয়েছিল। একটি স্ক্রিন-শট ট্যুইট করে কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বাবুল সুপ্রিয় জানতে চান, এই ভিডিওটি করেছেন যে সোমনাথ দাস, তাঁর বিরুদ্ধে অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে কিনা? অভিযোগ করা হয়, ওই ব্যক্তির করোনা পরীক্ষার রেজাল্ট নেগেটিভ আসার পর হাসপাতাল থেকে ছেড়ে দেওয়া হলে তাঁকে গ্রেফতার করে পুলিশ।
কেন্দ্রীয় মন্ত্রীর এই ট্যুইটের জবাবে কলকাতা পুলিশের তরফে একটি ট্যুইটে বলা হয়, বাবুল সুপ্রিয়র শেয়ার করা তথ্য ভুল। সোমনাথ দাসের বিরুদ্ধে কোনও অভিযোগ দায়ের করেনি কলকাতা পুলিশ।

যদিও কলকাতা পুলিশের এই ট্যুইটের প্রেক্ষিতে ফের আর এক ট্যুইটে বাবুল দাবি করেন, কলকাতা পুলিশকে বিশ্বাস করার কোনও কারণ নেই। কারণ অনেকদিন ধরে তারা তৃণমূলের ‘দলদাসে’ পরিণত হয়েছে। আসানসোলের বিজেপি সাংসদ লেখেন, কলকাতা পুলিশ তাঁর প্রশ্নের জবাব দেওয়ায় তিনি খুশি হয়েছেন। তারপর লেখেন, কিন্তু যখন আমরা সারা দেশের পুলিশ বাহিনীর কাজের প্রশংসা করছি ও আপনাদের নিঃস্বার্থ পরিষেবাকে শ্রদ্ধার নজরে দেখছি, তখনও আপনাদের বিশ্বাস করার কোনও কারণ খুঁজে পাচ্ছি না। কেন আমি এ কথা বলছি জানতে চাইলে নিজেদের তৃণমূলের দলদাস হয়ে ওঠার ইতিহাসে উত্তর খুঁজুন।

এখানেই শেষ নয়, কলকাতা পুলিশের ট্যুইটে তাঁকে কেন ‘মাননীয়’ বলে সম্বোধন করা হয়নি তা নিয়েও প্রশ্ন তোলেন বাবুল। তিনি ট্যুইটারে লেখেন, আমি যেমন শিষ্টাচারের পরিচয় দিয়ে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রীকে শুধু মমতা ব্যানার্জি নয়, মাননীয়া হিসেবে উল্লেখ করেছি, তেমনই আপনাদেরও মন্ত্রীদের মাননীয় হিসেবেই উল্লেখ করা উচিত।

এই ট্যুইটের অবশ্য কোনও জবাব দেয়নি কলকাতা পুলিশ।

Comments
Loading...