রাহুল গান্ধীর সভায় যোগদানের জন্য কেন্দ্রের নির্দেশে নয় অধ্যাপককে শোকজ করল গুজরাত কেন্দ্রীয় বিশ্ববিদ্যালয়

গুজরাত নির্বাচনের আগে রাহুল গান্ধীর সভায় উপস্থিত থাকার জন্য গুজরাত কেন্দ্রীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের ন’জন অধ্যাপককে শোকজ করল কেন্দ্রীয় বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ। শুধুমাত্র কংগ্রেসই নয়, বিজেপি বিরোধী হার্দিক প্যাটেল, জিগনেশ মেভানির সভায় উপস্থিত থাকার জন্যও শাসকদলের রোষের মুখে পড়তে হয়েছে এই অধ্যাপকদের। সূত্রের খবর, বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র ইউনিয়ন এবিভিপির পক্ষ থেকে কেন্দ্রীয় মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রী প্রকাশ জাভড়েকরকে ছবিসহ এই অধ্যাপকদের বিরুদ্ধে অভিযোগ জানানো হয়েছিল। গত নভেম্বর মাসে কংগ্রেসের ‘নবসার্জন জ্ঞান অধিকার’ সভায় এই নয় অধ্যাপক যোগ দিয়েছিলেন। গুজরাত বিশ্ববিদ্যালয়কে দিল্লির জেএনইউতে পরিণত করার পরিকল্পনা করা হচ্ছে বলেও এবিভিপির পক্ষ থেকে অধ্যাপকদের বিরুদ্ধে নালিশ করা হয়েছে। গুজরাত বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য সৈয়দ আব্দুল বারি জানান,’কেন্দ্রীয় মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রক, গুজরাত মুখ্য নির্বাচনী আধিকারিকের দপ্তর এবং রাজ্য শিক্ষা দপ্তর থেকে পাঠানো নির্দেশের ওপর ভিত্তি করেই তিনি অধ্যাপকদের শোকজ করেছেন। যদিও ছবিতে নির্দিষ্ট তারিখের উল্লেখ না থাকলেও অধ্যাপকদের সঙ্গে রাহুল গান্ধীর ছবি নিয়েই নানা মহলের আপত্তি উঠেছে। জানা গিয়েছে, ‘সেন্ট্রাল সিভিল সার্ভিস কোড’ লঙঘনের অভিযোগে দুজন অধ্যাপকসহ সাত জন সহকারী অধ্যাপককে দোষী সাব্যস্ত করা হয়েছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক গুজরাত বিশ্ববিদ্যালয়ের এক শিক্ষকের কথায়,’গুজরাতে শিক্ষকদের কী ধরনের সমস্যায় পড়তে হতে হয়, তাই ছিল সভায় আলোচনার বিষয়বস্তু। আলোচনায় যোগদানের মানে কোনও রাজনৈতিক দলের হয়ে প্রচার করা নয়।’ গুজরাত রাজ্য নির্বাচনী আধিকারীকের পক্ষ থেকেও ঘটনার সত্যতা স্বীকার করা হয়েছে। এই ঘটনা প্রথম নয়, এর আগে ২০০৯ সালে জামিয়া মিলিয়া ও জেএনইউ এর অতিবামপন্থী ছাত্রদের নিয়ে গোপনে সংগঠন বাড়ানোর মিটিং করার অভিযোগ উঠেছিল গুজরাত কেন্দ্রীয় বিশ্ববিদ্যালয় আর সি কালের বিরুদ্ধে।

Comments
Loading...