রবিবারের বড় ম্যাচের টিকিট নিয়ে হাহাকার ময়দানে, চাহিদা বেশি ইস্টবেঙ্গলের

‘দাদা একটা টিকিট জোগাড় করে দিন প্লিজ’! ময়দানে কান পাতলে এখন একটা কথাই শোনা যাচ্ছে। একটা টিকিট! পাগলের মত খুঁজে বেড়াচ্ছে লোকজন। মরসুমের প্রথম বড় ম্যাচ নিয়ে টিকিটের মারাত্মক চাহিদা। টিকিটের চাহিদার দিক থেকে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীকে অনেকটাই পিছিয়ে দিয়েছে ইস্টবেঙ্গল।
পেটিএম মারফত অনলাইন টিকিট কাটার ব্যবস্থা করেছিল আইএফএ। কিন্তু অনলাইনে ইস্টবেঙ্গলের টিকিট খুঁজতে গেলে, একটা জিনিসই দেখা যাচ্ছে বৃহস্পতিবার দুপুরের পর থেকে। ‘সোল্ড আউট’! অনলাইনে ইস্টবেঙ্গল গ্যালারির ১০০ টাকার টিকিট শেষ হয়ে গিয়েছিল সবার আগে। এদিন দুপুরের পর দেখা গেল ১০০, ১৫০, ২০০, ৪০০ টাকার সব টিকিট শেষ। মোহনবাগান গ্যালারির অনলাইন টিকিট অবশ্য এখনও পাওয়া যাচ্ছে।
বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই টিকিটের লম্বা লাইন যুবভারতীর টিকিট কাউন্টারগুলোতে। বিকেলের দিকে কাউন্টার থেকে ঘোষণা করে দেওয়া হল এদিনের মত ইস্টবেঙ্গল গ্যালারির অফলাইন টিকিট শেষ। প্রায় একই পোস্টার পড়ল ইস্টবেঙ্গল ক্লাবের কাউন্টারে। লিখে দেওয়া হল, ‘আজকের মত টিকিট শেষ’!
কাল আদৌ টিকিট পাওয়া যাবে তো? এই প্রশ্নটাই এখন উঁকি দিচ্ছে সমর্থকদের মনে। সমর্থকদের যত উদ্বেগ বাড়ছে, ততই হাসি চওড়া হচ্ছে আইএফএ কর্তাদের। ৬৬ হাজার টিকিটের মধ্যে ১৪ হাজার টিকিট পাবেন দু’প্রধানের সদস্যরা। এছাড়াও আই এফ এর সদস্য, বিভিন্ন আইএফএ নথিভূক্ত সংস্থা, রাজ্য সরকার, পুলিশ সবাইকে টিকিট দিয়ে ৪০ হাজারের কাছাকাছি টিকিট বিক্রির জন্য রেখেছিল আইএফএ। রাজ্য সংস্থার কর্তাদের দাবি, শুক্রবার দুপুরের মধ্যেই সিংহভাগ টিকিট বিক্রি হয়ে যাবে। রবিবার ভরা যুবভারতীতে বড় ম্যাচ হবে বলে তাঁদের বিশ্বাস।

Comments
Loading...