যারা মানুষকে ভুল পথে চালিত করে, তারা কখনওই নেতা নয়, সেনাপ্রধানের রাজনৈতিক মন্তব্যে তোলপাড়

সংশোধিত নাগরিকত্ব আইন ও নাগরিকপঞ্জির বিরুদ্ধে আন্দোলনের বিপক্ষে সওয়াল করলেন সেনা প্রধান বিপিন রাওয়াত (Bipin Rawat)। যা নিয়ে তীব্র প্রতিক্রিয়া দেশে।
বৃহস্পতিবার সেনাবাহিনীর প্রধান বিপিন রাওয়াত বলেন, যাঁরা মানুষকে ভুল পথে চালিত করেন তাঁরা নেতা নন। দিল্লির এক অনুষ্ঠান থেকে রাওয়াত বলেন, সম্প্রতি কয়েক জনের নেতৃত্বে দেশের বিশ্ববিদ্যালয় এবং কলেজে যে বিপুল সংখ্যক পড়ুয়া অগ্নিসংযোগ করছে এবং হিংসা ছড়াচ্ছে, তাকে নেতৃত্ব দেওয়া বলে না। নাগরিকত্ব আইন ও এনআরসির বিরুদ্ধে আন্দোলনে নেতৃত্ব দেওয়াকে ‘অত্যন্ত জটিল ব্যাপার’ বলে উল্লেখ করেন রাওয়াত। তাঁর কথায়, নেতৃত্ব দেওয়ার অর্থ হল এগিয়ে নিয়ে যাওয়া। সেটাই যদি হয়, তাহলে নেতৃত্ব দান কোনও কঠিন বিষয় নয়। কিন্তু আপনি যে পথেই এগোবেন, আপনাকেই অন্যরা অনুসরণ করবে। তাই আপাতদৃষ্টিতে নেতৃত্ব দান সহজ মনে হলেও, এর মধ্যে অনেক গুরুদায়িত্ব আছে।
এনআরসি ও নাগরিকত্ব আইনের বিরুদ্ধে দেশজুড়ে সর্বাত্মক আন্দোলনে প্রায় ২১ জনের মৃত্যু হয়েছে। আহত হয়েছেন বহু, অনেক নেতাকে আটক করা হয়েছে। এই পরিপ্রেক্ষিতে সেনা প্রধানের (Bipin Rawat) বক্তব্যে আন্দোলনকারীদেরকেই কটাক্ষ করা হয়েছে বলে ওয়াকিবহাল মহলের মত।
তাঁর এই মন্তব্য প্রকাশ্যে আসতেই সমালোচনায় মুখর হয়েছে বিরোধীরা। স্বরাজ ইন্ডিয়া দলের নেতা যোগেন্দ্র যাদবের কটাক্ষ, বাংলাদেশ বা পাকিস্তানে সেনাপ্রধানরা দেশ চালিয়ে তাতে আখেরে দু’দেশের ক্ষতিই হয়েছে। তাই রাজনৈতিক বিষয়ে রাওয়াতের মন্তব্য উচিত নয় বলে মন্তব্য করেন তিনি।

Comments
Loading...