তৃণমূল সরকারের ৮ বছরে উন্নয়নমূলক কাজ আগের ৬৪ বছরের থেকেও বেশি হয়েছে, বললেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়

স্বাধীনতার পর থেকে ২০১১ সাল পর্যন্ত ও তারপর তৃণমূল সরকারের আমলে রাজ্যের উন্নয়নের ফারাক নিয়ে বই প্রকাশ করলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। বুধবার কলকাতায় এক সাংবাদিক বৈঠক করেন মুখ্যমন্ত্রী। তিনি বলেন, ১৯৪৭ সাল থেকে ২০১১ সাল, এই ৬৪ বছরে রাজ্যের কী উন্নয়ন হয়েছে আর ২০১১ সাল থেকে তাঁর সরকারের আমলে কী কী পরিবর্তন ও উন্নয়ন সাধিত হয়েছে তার সুস্পষ্ট উল্লেখ রয়েছে এই বইয়ে।
পাশাপাশি, আগামী কয়েক বছরে তাঁদের কী কী পরিকল্পনা রয়েছে, সে কথাও প্রকাশ করা হয়েছে। মমতার কথায়, এই কয়েক বছরে রাজ্যে কত সংখ্যক স্কুল, কলেজ হয়েছে বা আগামী দিনে আরও কী কী হতে চলেছে সে নিয়ে তথ্য দেওয়া হয়েছে বইটিতে।
অর্থনীতিবিদ অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায়ের নোবেল প্রাপ্তি ও ভারতীয় ক্রিকেট দলের প্রাক্তন অধিনায়ক সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট হওয়া নিয়ে বাঙালি হিসাবে তিনি গর্বিত বলে মন্তব্য করেন মুখ্যমন্ত্রী। জানান, অর্থনীতিবিদ অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায়ের মা এখন এই শহরেই আছেন। এদিন বিকেলেই মুখ্যমন্ত্রী নোবেলজয়ী অর্থনীতিবিদের বাড়ি গিয়ে তাঁর মায়ের সঙ্গে দেখা করেন। সূত্রের খবর, অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায়কে সংবর্ধনা দিতে চায় রাজ্য। সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়কে ‘ঘরের ছেলে’ বলে উল্লেখ করেন মুখ্যমন্ত্রী। তাঁদের দু’জনের কর্মকাণ্ড বাঙালির কাছে গর্বের বিষয় বলে জানান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।
মমতা বলেন, সবুজসাথী, উৎকর্ষ বাংলা সহ তৃণমূল সরকারের বিভিন্ন জনমুখী প্রকল্পের উল্লেখযোগ্য প্রভাব, গত কয়েক বছরে বাংলার কৃষিক্ষেত্রে উন্নতি, জনমুখী প্রকল্পে রাজ্যের খরচের খতিয়ান, রাজস্ব বৃদ্ধি সহ একাধিক সাফল্যের কথা জানাবে এই বই। পাশাপাশি, পুজোর সময় পুলিশ প্রশাসনের ভূমিকার ভূয়সী প্রশংসা করে রাজ্যের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, পুজোর সময় একটিও অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি।

Comments
Loading...