মানুষের দুয়ারে বাম-কংগ্রেস জোট সরকার, ভিড়ে ঠাসা জনসভায় ঘোষণা সেলিমের

বাম-কংগ্রেসের সমাবেশে বিপুল জনসমাগম রামপুরহাটে

ধর্ম-বর্ণ নির্বিশেষে সরকার গড়বে বাম-কংগ্রেস জোট। সেই সরকার আগেভাগেই পৌঁছে যাবে মানুষের দুয়ারে। বীরভূমের রামপুরহাট থেকে বাম-কংগ্রেসের যৌথ সভা থেকে এমনই ঘোষণা করলেন সিপিএমের পলিটব্যুরো সদস্য তথা প্রাক্তন সাংসদ মহম্মদ সেলিম।

বৃহস্পতিবার দুপুরে রামপুরহাটে বাম ও কংগ্রেসের যৌথ উদ্যোগে দীর্ঘ পদযাত্রা হয়। শহর ঘুরে সেই মিছিল শেষ হয় রামপুরহাট পৌর ময়দানে। তারপর সভা থেকে মহম্মদ সেলিমের ঘোষণা, সর্বস্তরের মানুষের ঐক্যবদ্ধ শক্তি নিয়ে সরকার গড়বে বাম-কংগ্রেস জোট। সভায় বিশাল জনসমাগম দেখে সেলিমের মন্তব্য, মানুষের এই এককাট্টা মেজাজই আরও একবার বুঝিয়ে দিল, এ রাজ্যে তৃণমূল হটাবেই। তৃণমূলের পাশাপাশি বিজেপিকে নিশানা করে সিপিএম নেতার মন্তব্য, বাংলায় গেরুয়াদের ঠাঁই হবে না। বিজেপিকে নিশানা করে তিনি আরও বলেন, ক্ষমতা দখলে মরিয়া বিজেপি ও রাজ্যের শাসক দল, দু’জনেরই ‘গোডাউন এক, শো-রুম আলাদা’। তৃণমূলত্যাগী বিজেপি নেতাদের নিশানা করে তাঁর খোঁচা, এই দুই শক্তিকেই ছুড়ে ফেলবে বাংলার মানুষের ঐক্যবদ্ধ শক্তি।

রামপুরহাটে বাম ও কংগ্রেসের যৌথ মিছিল শেষে সভায় উপস্থিত ছিলেন কংগ্রেসের জেলা সভাপতি ও বিধায়ক মিলটন রশিদ, ফরওয়ার্ড ব্লকের বাংলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক নরেন চ্যাটার্জি, আরএসপি নেতা তপন হোড় প্রমুখ। সেই সভা থেকে মহম্মদ সেলিম বলেন, ‘দিল্লিতে মোদী বিকাশের নামে বেকুব বানাচ্ছেন, এ রাজ্যে দিদি উন্নয়নের বোকা বানাচ্ছেন।’ এখন তৃণমূল শেষ সময়ে দুয়ারে দুয়ারে ঘুরছে বলে রাজ্যের দুয়ারে সরকার কর্মসূচিকে কটাক্ষ করেন সিপিএমের পলিটব্যুরো সদস্য। তাঁর দাবি, এ রাজ্যে প্রকৃতপক্ষে মানুষের দুয়ারে ছিল পূর্বতন বাম সরকার। তাই আবার ধর্ম-বর্ণ নির্বিশষে ছাত্র-যুব-মহিলাদের জোটশক্তির সাহায্যেই আসন্ন নির্বাচনে জিতে সরকার গড়বে বাম-কংগ্রেস জোট। তারাই থাকবে মানুষের দুয়ারে।

Comments
Loading...