মেট্রোয় বাড়ছে টিকিটের দাম, ৫ টাকার টিকিটে ৫ এর বদলে ২ কিলোমিটার

ছয় বছর পর ফের বাড়ছে কলকাতা মেট্রো রেলের ভাড়া। আগামী ৫ ডিসেম্বর থেকে এই বর্ধিত চালু হবে বলে মেট্রো রেলের তরফে জানানো হয়েছে। ভাড়া বৃদ্ধির পর, কিছু ক্ষেত্রে যাত্রীদের বর্তমান ভাড়ার তুলনায় প্রায় দ্বিগুণ ভাড়া গুনতে হবে। মেট্রোর ন্যূনতম ও সর্বোচ্চ ভাড়া যথাক্রমে ৫ টাকা ২৫ টাকা থাকলেও দূরত্ব অনুযায়ী ভাড়ার তারতম্য ঘটছে। এখন ৫ টাকার টিকিট কেটে ৫ কিলোমিটার পর্যন্ত যাওয়া যায়। যা ৫ ডিসেম্বরের পর থেকে দুই কিলোমিটার করা হচ্ছে। অর্থাৎ, দুই কিলোমিটার রাস্তা পেরলেই ১০ টাকা ভাড়া গুনতে হবে। মেট্রো রেলের বিভিন্ন স্টেশনের মধ্যবর্তী দূরত্ব পর্যালোচনা করে দেখা যাচ্ছে, মোটামুটি তিনটি স্টেশন পার করলেই ১০ টাকা ভাড়া দিতে হবে। উদাহরণ হিসেবে বলা যেতে পারে, নোয়াপাড়া মেট্রো স্টেশন থেকে দমদম এবং তার পরের স্টেশন বেলগাছিয়া পর্যন্ত বর্তমান ভাড়া ৫ টাকা। তবে ভাড়া বৃদ্ধির পর নোয়াপাড়া থেকে বেলগাছিয়া যেতে হলে ১০ টাকা ভাড়া দিতে হবে। কারণ, মেট্রো রেল কর্তৃপক্ষের চার্ট অনুযায়ী, ওই স্টেশনগুলির মধ্যে দূরত্ব দু’কিলোমিটারের বেশি।
পাশাপাশি, এখন ১০ থেকে ২০ কিলোমিটার পর্যন্ত যেতে মেট্রোয় ১৫ টাকার টিকিট কাটতে হয়। ৫ ডিসেম্বর থেকে ৫ থেকে ১০ কিলোমিটার যাওয়ার জন্য টিকিটের দাম হবে। ২০ থেকে ২৫ কিলোমিটার পর্যন্ত যেতে হলে বর্তমান ভাড়া ২০ টাকা। নয়া ভাড়া চালু হলে, ১০ থেকে ২০ কিলোমিটার যাওয়ার জন্য দিতে হবে ২০ টাকা। এখন ২৫ কিলোমিটারের বেশি দূরত্বের জন্য ভাড়া ২৫ টাকা। নতুন হারে ২০ কিলোমিটারের বেশি গেলেই ২৫ টাকা ভাড়া হবে। তবে ২৫ কিলোমিটারের বেশি গেলে কোনও বাড়তি ভাড়া দিতে হচ্ছে না।
ছয় বছর আগে, ২০১৩ সালের নভেম্বরে শেষবার মেট্রোর ভাড়া বেড়েছিল। দীর্ঘদিন ভাড়া বৃদ্ধি না হওয়ায় আয়-ব্যয়ের ফারাক অনেকটাই বেড়েছে বলে মেট্রোর কর্তাদের দাবি। মেট্রো সূত্রের খবর, ২০১৮ থেকে ২০১৯ আর্থিক বছরের হিসেব অনুযায়ী, মেট্রোকে ১০০ টাকা আয় করতে হলে ব্যয় করতে হয়েছে ২৪৮ টাকা। এই পরিস্থিতিতে ভাড়া বৃদ্ধির প্রস্তাব পৌঁছেছিল রেল বোর্ডে।
এদিকে, ভাড়া বৃদ্ধি হলেও মেট্রো পরিষেবার মান উন্নত করার দাবি করেছেন যাত্রীরা। উঠছে ট্রেনের সংখ্যা বৃদ্ধির দাবিও। গত প্রায় এক বছর ধরে মেট্রো রেলে নানা ধরনের বিভ্রাট হয়েছে। রেকে আগুন ধরা থেকে শুরু করে দরজার বাইরে ঝুলতে থাকা যাত্রীকে নিয়ে মেট্রো রেলের দৌড় এবং শেষে সেই যাত্রীর মৃত্যু, মাঝে মাঝেই চলন্ত ট্রেনের দরজা খুলে যাওয়া, যাত্রীদের দরজায় আটকে যাওয়া ইত্যাদি হরেক ঘটনার সাক্ষী থেকেছেন নিত্যযাত্রীরা। সর্বোপরি রয়েছে যখন তখন ট্রেন বাতিল করা এবং টাইম টেবল না মানা ট্রেন চলাচল। এসবের জেরে বিভিন্ন সময়ে যাত্রী বিক্ষোভও হয়েছে।  যাত্রীদের বক্তব্য, ভাড়া বাড়লে দিতে ক্ষতি নেই। কিন্তু মেট্রো রেলকে পরিষেবার দিকটি খেয়াল রাখতে হবে।

Comments
Loading...