উপহার চাই না, সেই টাকা দিন স্বেচ্ছাসেবী সংস্থাকে, বিয়ের কার্ডে অভিনব আবেদনে নজর কাড়ছেন চেন্নাইয়ের গায়ত্রী-হর্ষবর্ধণ

কোনও উপহার নয়, বদলে ২টি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থাকে সাহায্য করতে হবে, বিয়ের কার্ডে অতিথিদের কাছে এমনই অভিনব আবেদন রাখলেন হর্ষবর্ধণ গনেশণ ও গায়ত্রী মানি।
২ রা সেপ্টেম্বর বিয়ে করছেন চেন্নাইয়ের আইনজীবী হর্ষবর্ধণ গণেশণ ও নিউইয়র্কে কর্মরত বায়ো-টেকনোলজিস্ট গায়েত্রী মানি। বিয়ের নিমন্ত্রণপত্র বিলি চলছে জোরকদমে। সেই বিয়ের কার্ডেই অতিথিদের কাছে অভিনব আবদার করেছেন হবু দম্পতি। নব দম্পতিকে আশীর্বাদ করতে আসার সময় যেন কোনও উপহার না আনা হয়। তার বদলে দুটি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থাকে অর্থ সাহায্য করুন নিমন্ত্রিতরা। বিয়ের কার্ডে এমনই লিখেছেন তাঁরা।

আদতে পুণের বাসিন্দা হর্ষবর্ধণ গণেশন পুণের ইন্ডিয়ান ল স্কুল থেকে পাশ করার পর বার্কলে বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পড়াশোনা করে এখন চেন্নাইয়ে আইন প্র্যাকটিস করছেন। তিনি ও তাঁর হবু স্ত্রী গায়ত্রী, দু’জনেই সমাজসেবামূলক কাজে যুক্ত। নিজেদের বিয়েতেও সমাজের গরিব মানুষ ও বন্য প্রাণীদের পাশে দাঁড়ানোর উদ্যোগ নিয়েছেন হবু দম্পতি। তাই বিয়ের নিমন্ত্রণপত্রে তাঁদের পছন্দের দুটি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থাকে আর্থিক সাহায্য করার জন্য অতিথিদের কাছে আবেদন জানিয়েছেন হর্ষবর্ধণ-গায়ত্রী।
‘আইডিয়া’ এবং ‘থানে এসপিসিএ’ এই দুটি স্বেচ্ছাসেবী সংস্থার সঙ্গে হর্ষবর্ধণ নিজে যুক্ত। ‘আইডিয়া’ স্বেচ্ছাসেবী সংস্থাটি সমাজের প্রান্তিক মানুষ ও দুঃস্থ মেধাবী ছাত্রছাত্রীদের আর্থিক সহায়তা প্রদান করে। অন্যদিকে, থানে এসপিসিএ অসুস্থ, আহত প্রাণীদের দেখাশোনা ও আশ্রয়ের ব্যবস্থা করে। তাই সহায় সম্বলহীন মানুষ ও প্রাণীদের সাহায্যের মাধ্যমে নিজেদের বিয়ের উপহার চেয়েছেন হবু দম্পতি। হবু দম্পতির এমন আবদারে দারুণ খুশি নিমন্ত্রিতরাও।

Comments
Loading...