জরুরি ক্ষেত্রে অক্সফোর্ডের করোনা ভ্যাকসিনে ছাড়পত্র কেন্দ্রের বিশেষজ্ঞ কমিটির

প্রতীক্ষার অবসান। ২০২১ সালের প্রথম দিনে প্রথম করোনা টিকার ছাড়পত্র দিল ভারত। এতদিন পরীক্ষামূলক ভাবে অক্সফোর্ড- অ্যাস্ট্রাজেনেকার তৈরি করোনা ভ্যাকসিন কোভিশিল্ড প্রয়োগ হচ্ছিল ভারতে। এবার তার জরুরি ব্যবহারে ছাড়পত্র দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিল কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের বিশেষজ্ঞ কমিটি।

অক্সফোর্ডের করোনা টিকা ভারতে তৈরি করছে পুনের সেরাম ইনস্টিটিউট। সেই টিকাকেই সরকারী বিশেষজ্ঞ কমিটির পক্ষ থেকে ছাড়পত্র দেওয়া হল। এরপর এটিকে ওষুধ নিয়ন্ত্রক সংস্থা, ‘ড্রাগ কন্ট্রোল জেনারেল অব ইন্ডিয়া’ বা DCGI- এর কাছে পাঠানো হবে। DCGI সিলমোহর দিলেই ভারতে শুরু হয়ে যাবে গণ টিকাকরণ। অক্সফোর্ড ইউনিভার্সিটি এবং ওষুধ সংস্থা অ‌্যাস্ট্রাজেনেকার করোনা ভ্যাকসিন ‘কোভিশিল্ড’- এর ছাড়পত্র পাওয়ার কারণ হিসেবে বলা হচ্ছে, এর কার্যকারিতা বাকি ভ্যাকসিনগুলির থেকে অনেকটা বেশি। এর মধ্যে কোভিড প্রতিরোধী ক্ষমতা ৬৪ শতাংশ। তাছাড়া এই টিকার পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াও অনেকটাই কম। ব্রিটেন, ব্রাজিলের মতো ভারতের ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালেও উল্লেখযোগ্য কার্যকারিতা পাওয়া গিয়েছে বলে জানাচ্ছে কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রক।

ভারতে এই করোনা টিকার প্রস্তুতকারক সংস্থা সেরাম ইনস্টিটিউট জানাচ্ছে, এখনই কোভিশিল্ড টিকার প্রায় পাঁচ কোটি ডোজ তৈরি করে ফেলেছে তারা। মার্চের মধ্যে ১০ কোটি ডোজ তৈরি হয়ে যাবে। করোনার টিকার যে বিপুল উত্‍পাদন হবে তার সিংহভাগই থাকবে ভারতের জন্য। উৎপাদনকারী সংস্থা সূত্রে খবর,ভারতে এই টিকার দাম হাজার টাকার মধ্যে হবে।

Comments
Loading...