রাফাল নিয়ে যৌথ সংসদী কমিটির দাবিতে অনড় কংগ্রেস। রাহুল গান্ধীকে ক্ষমা চাইতে হবে, দাবি বিজেপির

সুপ্রিম কোর্ট রাফাল দুর্নীতি মামলা খারিজ করার পরেও যৌথ সংসদীয় কমিটি গড়ার দাবিতে অনড় কংগ্রেস। এই ইস্যুকে কেন্দ্র করে শুক্রবার লোকসভাতেও ধন্ধুমার হয়। এদিকে, রাফালে অন্যায়ভাবে রিলায়েন্স ডিফেন্সকে সুযোগ পাইয়ে দেওয়া হয়েছে বলে কংগ্রেস যে অভিযোগ এনেছিল, তা নিয়ে এদিন রায়ের পর মুখ খুলেছেন অনিল আম্বানী। অনিল আম্বানী সুপ্রিম কোর্টের রায়কে স্বাগত জানিয়ে বলেন, রাজনৈতিক কারণে উদ্দেশ্যপ্রণোদিত অভিযোগ আনা হয়েছিল।
রাফাল নিয়ে মিথ্যে অভিযোগ করা হয়েছে, এই দাবিতে এদিন সুপ্রিম কোর্টের পরই বিজেপি নেতৃত্ব কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধীকে ক্ষমা চাইতে বলে। এরপরই লোকসভায় শুরু হয় উত্তপ্ত বাক্য বিনিময়। প্রতিরক্ষামন্ত্রী রাজনাথ সিংহ থেকে অর্থমন্ত্রী অরুণ জেটলি দাবি করেন, রাফালে কোনও দুর্নীতি হয়নি, সুপ্রিম কোর্টের রায়েই তা পরিষ্কার। সুতরাং, মিথ্যে মামালা ও অভিযোগ করার জন্য রাহুল গান্ধীসহ অন্যান্য কংগ্রেস নেতাকে ক্ষমা চাইতে বলা হয়। সংসদে শুরু হয় তীব্র বাক্য বিনিময়। লোকসভার স্পিকার সুমিত্রা মহাজন বাধ্য হয়ে সোমবার পর্যন্ত সংসদ মুলতুবি করে দেন।
কংগ্রেস মুখপাত্র রণদীপ সুরজওয়ালা সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে বলেন, তাঁদের কাছে বিজেপির রাফাল দুর্নীতির যথেষ্ট প্রমাণ রয়েছে। তিনি জানান, সুপ্রিম কোর্টের রায়ে খুশি নন তাঁরা। যৌথ সংসদীয় কমিটি গড়ে রাফাল চুক্তি নিয়ে তদন্ত করতে হবে সরকারকে।
পালটা সাংবাদিক বৈঠকে বিজেপি সভাপতি অমিত শাহ বলেন, কংগ্রেস সভাপতি নিজে মিথ্যের ওপর ভিত্তি করে রাজনীতি করছেন, যার ওপর চপেটাঘাত করেছে সুপ্রিম কোর্ট।

Comments
Loading...