রাফাল রায় নিয়ে বিক্ষোভ-পাল্টা বিক্ষোভ কংগ্রেস ও বিজেপি দফতরে

সুপ্রিম কোর্টের রাফাল-রায়কে ঘিরে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের বিক্ষোভ, পাল্টা বিক্ষোভে উত্তাল হয়ে উঠল মধ্য কলকাতা। রাহুল গান্ধীকে ক্ষমা চাইতে হবে, এই দাবি তুলে শুক্রবার একদল বিজেপি সমর্থক তুমুল বিক্ষোভ দেখায় এন্টালি সিআইটি রোডে প্রদেশ কংগ্রেসের সদর দফতর বিধান ভবনে। সেখানে বিজেপি কর্মীরা রাহুল গান্ধী, সনিয়া গান্ধী ও প্রিয়াঙ্কা গান্ধীর ছবি দেওয়া বিভিন্ন প্ল্যাকার্ড, ফ্লেক্স ছিঁড়ে ফেলে। বেছে বেছে রাহুলের ছবিতে কালো কালি লেপে দেওয়া হয়। একদল আবার বিধান ভবনের ভিতরে ঢোকার চেষ্টা করে। পুলিশ এবং কংগ্রেস দফতরের কর্মীরা তড়িঘড়ি মূল গেটের তালা বন্ধ করে দেয়। বিজেপি কর্মীদের বন্ধ গেট ধরে ধাক্কাধাক্কি করতে দেখা যায়। পুলিশ কর্মীদের দিকেও কালো কালি ছোঁড়া হয়। দু’একজন পুলিশ কর্মীর সাদা উর্দি কালো কালিতে ভরে যায়। শহরের বিভিন্ন এলাকা থেকে টেম্পো-ম্যাটাডর চেপে বিজেপি সমর্থকরা বিক্ষোভ দেখাতে এসেছিল। পরে পুলিশ তাদের সরিয়ে দেয়।
এর কিছুক্ষণের পরেই কয়েক’শ যুব কংগ্রেস কর্মী বিজেপির বিরুদ্ধে স্লোগান দিতে দিতে সেন্ট্রাল অ্যাভিনিউতে বিজেপির রাজ্য দফতরের সামনে জড়ো হয়। তারা বিজেপি অফিস ঘেরাও করতে চেয়েছিল। বাধা দিলে পুলিশের সঙ্গে কংগ্রেস কর্মীদের ধ্বস্তাধ্বস্তি হয়। কয়েকজন কংগ্রেস কর্মী রাস্তায় শুয়ে এবং বসে বিক্ষোভ দেখাতে থাকে। পুলিশ তাদের চ্যাংদোলা করে ভ্যানে তোলে। এভাবে দফায় দফায় চলে অবস্থান। পুলিশও দফায় দফায় তাদের টেনে হিঁচড়ে সরিয়ে দেয়।
রাফাল মামলার রায়ের পরেও রাহুল গান্ধী শুক্রবার দাবি করেন, বিচারপতি কে এম যোসেফ তাঁর পৃথক রায়ে রাফাল দুর্নীতি নিয়ে সিবিআই তদন্তের দরজা খোলা রেখেছেন। তাই রাফাল তদন্তে যৌথ সংসদীয় কমিটি চাই। বিজেপি অবশ্য এই দাবি খারিজ করে দিয়েছে। রাহুলের ক্ষমা চাওয়ার দাবি নিয়ে শুক্রবার বিজেপির দিল্লির নেতারা কংগ্রেস দফতরের সামনে বিক্ষোভ দেখান। বিজেপির নির্দেশ ছিল, শনিবার সারা দেশের সব জেলায় এই ইস্যুতে কর্মী সমর্থকদের বিক্ষোভ দেখাতে হবে। সেই মতোই এদিন রাজ্য বিজেপি প্রদেশ কংগ্রেসের সদর দফতরের সামনে বিক্ষোভ করে।
Comments
Loading...