আগামী ৪৮ ঘণ্টা বৃষ্টির পূর্বাভাস, পুজোয় বৃষ্টি হবে? বর্ষাসুরের মতিগতি বুঝতে নাজেহাল বাঙালি

দুর্গাপুজোর মুখে টানা বৃষ্টিতে বন্যা পরিস্থিতির মুখে রাজ্যের একাধিক জেলা। রবিবার গভীর রাত থেকে বৃষ্টিতে জলে জমেছে কলকাতার বহু এলাকায়। পুজোর সময়ও আবহাওয়ার উন্নতির সম্ভাবনা কম বলেই জানাচ্ছেন আবহাওয়াবিদদের একাংশ। আবহাওয়া দফতরের পূর্বাভাস, আগামী ৪৮ ঘন্টায় কলকাতা সহ দক্ষিণবঙ্গের জেলাগুলিতে মাঝারি থেকে ভারী বৃষ্টি হতে পারে। কিছু কিছু জায়গায় বজ্রবিদ্যুত-সহ বৃষ্টির পূর্বাভাস রয়েছে। এছাড়া উত্তরবঙ্গের জেলাগুলিতেও ভারী বৃষ্টি হতে পারে বলে জানাচ্ছে আবহাওয়া দফতর।
টানা বৃষ্টিতে ইতিমধ্যেই বীরভূম, পশ্চিম বর্ধমানের বেশ কিছু ব্লক বন্যার কবলে পড়েছে। এর মধ্যে আবহাওয়া দফতর জানাচ্ছে, সোমবারও মাঝারি থেকে ভারী বৃষ্টি হবে রাজ্যের বিভিন্ন জেলায়। কলকাতা সহ দক্ষিণবঙ্গের হুগলি, উত্তর ও দক্ষিণ ২৪ পরগনা, দুই মেদিনীপুর জেলাতে মাঝারি বৃষ্টি হতে পারে বলে জানিয়েছে হাওয়া অফিস। আগামী ৪৮ ঘন্টায় জলপাইগুড়ি, আলিপুরদুয়ার, কোচবিহারে ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস দিয়েছে আবহাওয়া দফতর। এদিকে, বীরভূম ও পশ্চিম বর্ধমানে অতি বৃষ্টির ফলে বন্যা পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে। ফুলাহার ও মহানন্দার জলস্তর বেড়ে মালদহে বন্যা পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। মালদহের ৬ টি গ্রামের লক্ষাধিক মানুষ বন্যা কবলিত হয়ে পড়েছেন। ময়ূরাক্ষী ও কুঁয়ে নদীর জলস্তর বাড়ায় বন্যাতঙ্ক বাড়ছে বীরভূমে। অন্যদিকে, প্রতিবেশী রাজ্য ঝাড়খণ্ডে লাগাতার বৃষ্টিতে বাঁধগুলির জলস্তর বিপদসীমার কাছাকাছি উঠে এসেছে। মাইথন ও পাঞ্চেত থেকে জল ছাড়ার পরিমাণ বাড়িয়ে দিয়েছে ডিভিসি। দুর্গাপুর ব্যারাজে থেকেও আরও বেশি জল ছাড়া হচ্ছে। ফলে পূর্ব বর্ধমান, হুগলিও ইত্যাদি জেলা এবারও প্লাবিত হতে পারে।

এদিকে প্রবল বৃষ্টিতে বিপর্যস্ত বিহার ও বিহারের লাগোয়া উত্তরপ্রদেশের পূর্ব অংশও। এই দুই রাজ্যে মৃত্যু বেড়েই চলেছে। চলছে বৃষ্টিও। গত চার দিনে বিহার ও উত্তরপ্রদেশ মিলিয়ে শতাধিক মানুষের মৃত্যুর খবর পাওয়া গিয়েছে।

সব মিলিয়ে পুজোর মুখে উৎসবের আনন্দ ফিকে করে আশঙ্কা আর আতঙ্ক বাড়াচ্ছে বৃষ্টি।

Comments
Loading...