আগামী দু’দিন কলকাতাসহ দক্ষিণবঙ্গে বৃষ্টির পূর্বাভাস, তারপর জাঁকিয়ে ঠান্ডা

ডিসেম্বরের মাঝামাঝি হয়ে গেলেও এবছর শীত এখনও অনুভব করতে পারেনি কলকাতাবাসী। রাজ্যেও শীত তেমন থাবা বসায়নি। আবহাওয়া দফতরের মতে, এর কারণ দক্ষিণ-পশ্চিম বঙ্গোপসাগরে তৈরি গভীর নিম্নচাপ ‘পেতাই’। চেন্নাই থেকে দক্ষিণ-পূর্বে ক্রমশ শক্তিশালী হচ্ছে ‘পেতাই’। এর অভিমুখ রয়েছে অন্ধ্রপ্রদেশ, বিশাখাপত্তনমের দিকে। তাই আগামী দু’দিন পশ্চিমবঙ্গের উপকূলবর্তী জেলাগুলিতে হালকা থেকে ভারি বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।
‘পেতাই’ নাম দিয়েছে থাইল্যান্ড। প্রতি ঘন্টায় ২০ কিলোমিটার বেগে কাঁকিনাড়া বন্দরের দিকে ধেয়ে চলেছে ‘পেতাই’। যার ফলে ইতিমধ্যে অন্ধ্র প্রদেশের উপকূলবর্তী জেলাগুলিতে শুরু হয়েছে বৃষ্টি। সঙ্গে রয়েছে দমকা হাওয়া। অন্ধ্রের উপকূলবর্তী অঞ্চলে জারি হয়েছে সতর্কতা। মৎস্যজীবীদের দু’দিন সমুদ্রে যেতে নিষেধ করা হয়েছে। বেশ কয়েকটি দূর পাল্লার ট্রেন বাতিল করা হয়েছে।
ওড়িশা রাজ্যের গজপতি, রায়গাড়া, কালাহান্ডি ইত্যাদি এলাকায় প্রবল বৃষ্টিপাতের সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানিয়েছে মৌসম ভবন।
এর জেরে এরাজ্যেও আগামী দু’দিন ধরে দুর্যোগ জারি থাকবে বলে জানিয়েছে দিল্লির মৌসম দফতর। দুই মেদিনীপুর, পুরুলিয়া, হাওড়া, হুগলি, বাঁকুড়া, পশ্চিম বর্ধমান এবং ঝাড়গ্রামে মাঝারি ও ভারি বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। সোমবার সন্ধের পর ৩০ থেকে ৪০ কিলোমিটার বেগে ঝড়েরও সম্ভাবনা রয়েছে। বুধবারের পর থেকে এই দুর্যোগ কাটবে এরাজ্যে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া দফতর। তারপর থেকেই নামবে পারদ, পড়বে জাঁকিয়ে শীত।

Comments
Loading...