আচমকাই এসপিজি নিরাপত্তা তুলে নেওয়া হল সনিয়া, রাহুল ও প্রিয়াঙ্কা গান্ধীর। এখন থেকে গান্ধী পরিবারের তিন সদস্য তথা কংগ্রেসের শীর্ষ নেতৃত্ব কেবল জেড প্লাস ক্যাটেগরির নিরাপত্তা পাবেন।
সরকারি সূত্রে খবর, শুক্রবার কংগ্রেস সভানেত্রী সনিয়া গান্ধী, তাঁর পুত্র তথা সাংসদ রাহুল গান্ধী ও কন্যা প্রিয়াঙ্কা গান্ধী বঢরাকে দেওয়া স্পেশাল প্রোটেকশন গ্রুপ বা এসপিজি নিরাপত্তা প্রত্যাহার করে নিল কেন্দ্র। এখন থেকে তাঁরা জেড প্লাস ক্যাটেগরির নিরাপত্তা পাবেন। গান্ধী পরিবারের ঘনিষ্ঠ সূত্রে খবর, সনিয়া গান্ধীদের না জানিয়েই এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্র।
গত অগাস্ট মাসেই প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংহের এসপিজি নিরাপত্তা তুলে নেয় কেন্দ্র। তারপর এক বিবৃতিতে বলা হয়, এখন থেকে কেবল চারজন রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব এসপিজি নিরাপত্তা পাবেন। এঁরা হলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী, কংগ্রেস সভাপতি সনিয়া গান্ধী, রাহুল গান্ধী ও প্রিয়াঙ্কা গান্ধী বঢরা। কিন্তু হঠাৎ করেই  সনিয়া এবং তাঁর পুত্র-কন্যার এসপিজি নিরাপত্তা কেন্দ্র তুলে নেওয়ায় বিস্মিত রাজধানীর বিভিন্ন মহল। কংগ্রেস এখনও পর্যন্ত এ ব্যাপারে আনুষ্ঠানিকভাবে কোনও প্রতিক্রিয়া জানায়নি।
প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধীর হত্যার পর ১৯৮৫ সালে প্রধানমন্ত্রীদের নিরাপত্তা কথা ভেবে ৩ হাজার বিশেষ রক্ষী সম্বলিত এসপিজি গ্রুপ গঠন করা হয়। ১৯৯১ সালে নির্বাচনী প্রচারে গিয়ে রাজীব গান্ধীর নিহত হওয়ার পর এসপিজি আইনে সংশোধন আনা হয়। সংশোধিত এসপিজি অ্যাক্টে বলা হয়, প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী ও তাঁদের পরিবারকে ১০ বছরের জন্য নিরাপত্তা দেবে এসপিজি। ২০০৩ সালে এসপিজি আইনে ফের সংশোধনী আনে অটলবিহারী বাজপেয়ী সরকার। নতুন আইনে প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী ও তাঁদের পরিবারকে সুরক্ষা প্রদানের দায়িত্ব প্রতি বছর পর্যালোচনার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। সাধারণত কোনও রাজনৈতিক ব্যক্তির উপর হামলার আশঙ্কা কতখানি, তা সমীক্ষা করে এসপিজি নিরাপত্তার ব্যবস্থা করে কেন্দ্র। তবে রাজীব গান্ধী হত্যার পর থেকে তাঁর পরিবারের উপর এসপিজি নিরাপত্তা আর তোলা হয়নি। ইন্দিরা গান্ধীর নৃশংস হত্যাকাণ্ডের পর থেকেই গান্ধী পরিবারের সদস্যদের উপর প্রাণনাশের হুমকি নিয়ে নানারকম চাপ তৈরি হয়। মায়ের মৃত্যুর পর, সাত বছরের মাথায় একইরকমভাবে তামিলনাড়ুর পেরামপুদুরে ভয়ঙ্কর প্রাণঘাতী বিস্ফোরণে মারা যান পুত্র রাজীব গান্ধী। তারপর সনিয়া, রাহুল ও প্রিয়াঙ্কা সহ গান্ধী পরিবারের সব সদস্যদেরই নিরাপত্তা বিষয়টি বড় করে দেখা দেয়। সেকারণেই সনিয়া, রাহুল ও প্রিয়াঙ্কা প্রায় তিন দশক ধরে এসপিজি নিরাপত্তা পেয়ে আসছিলেন। কিন্তু নজিরবিহীনভাবে দ্বিতীয়বার ক্ষমতায় এসেই মোদী সরকার তাঁদের এসপিজি নিরাপত্তা তুলে নেওয়ায় অনেকেই অবাক হয়ে গিয়েছেন। রাজনৈতিক মহল মনে করছে, আগামী দিনে এই নিয়ে বিতর্ক অনেক দূর গড়াবে।

ধারাবাহিকভাবে পাশে থাকার জন্য The Bengal Story র পাঠকদের ধন্যবাদ। আমরা শুরু করেছি সাবস্ক্রিপশন অফার। নিয়মিত আমাদের সমস্ত খবর এসএমএস এবং ই-মেইল এর মাধ্যমে পাওয়ার জন্য দয়া করে সাবস্ক্রাইব করুন। আমরা যে ধরণের খবর করি, তা আরও ভালোভাবে করতে আপনাদের সাহায্য আমাদের উৎসাহিত করবে।

Login Subscribe

You may also like