ফোনে আড়ি পাতছে পুলিশ! মহিষাদলের সভা থেকে বিস্ফোরক অভিযোগ শুভেন্দুর

রাজ্যের শাসক দলের বিরুদ্ধে একের পর অভিযোগ করেছেন পদত্যাগী নেতা শুভেন্দু অধিকারী। এবার তাঁর ফোনে আড়ি পাতা হচ্ছে বলে পূর্ব মেদিনীপুরের মহিষাদলের সভা থেকে বিস্ফোরক অভিযোগ করলেন নব্য বিজেপি নেতা। ঠিক কী বলেছেন নন্দীগ্রামের পদত্যাগী বিধায়ক?

শনিবার বিকেলে মহিষাদলের দ্বারিবেড়িয়ায় দলীয় সভায় বক্তব্য করছিলেন শুভেন্দু। সেখানে পুরনো দলের বিরুদ্ধে একের পর এক অভিযোগ করতে করতে তিনি জানান, স্থানীয় এক বিজেপি কর্মীকে মিথ্যা মামলায় জেল খাটিয়েছে রাজ্যের পুলিশ। এরপরেই শুভেন্দুর মন্তব্য,’আপনারা সবাই আমার নম্বর (মোবাইল) জানেন। কিন্তু আমি ফোন ধরতে পারছি না। ভাইপোর পুলিশ ফোন ট্যাপ করছে।’ তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ রাখার জন্য বিজেপি কর্মীদের হোয়াটসঅ্যাপ করার পরামর্শ দেন শুভেন্দু।

গত ডিসেম্বর মাসে তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পরপরই রাজ্যপাল জগদীপ ধনখড়ের কাছে গিয়ে রাজ্যের আইন- শৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ে আশঙ্কা প্রকাশ করেছিলেন শুভেন্দু। চিঠি দিয়ে রাজ্যপালের কাছে উদ্বেগ প্রকাশ করেছিলেন তাঁকে ও তাঁর অনুগামীদের মিথ্যা মামলায় ফাঁসাতে পারে রাজ্যের পুলিশ। রাজনৈতিক প্রতিহিংসার শিকার হতে পারেন তিনি। এবার মমতা সরকারের পুলিশ প্রশাসনের বিরুদ্ধে ফোনে আড়ি পাতার অভিযোগ করলেন শুভেন্দু।

এদিনের সভাতেও শুভেন্দুর নিশানায় ছিলেন তৃণমূল সাংসদ তথা যুব তৃণমূলের সভাপতি অভিষেক ব্যানার্জি। পাশাপাশি শুভেন্দুর মুখে শোনা গিয়েছে কেন্দ্রের নয়া কৃষি বিলের প্রশংসা। তাঁর দাবি, মোদী সরকারের কৃষি বিল সম্পর্কে ভ্রান্ত ধারনা ছড়াচ্ছে বিজেপি বিরোধী দলগুলি। শুভেন্দুর কথায়,

কৃষি বিল যদি সর্বনাশ করে দেয় তাহলে একের পর এক রাজ্যের উপনির্বাচনে কীভাবে জয়লাভ করছে বিজেপি! তাঁর কথায়, কৃষি বিল পেশের পর বিহারে ভোট হয়েছে এবং এনডিএ জিতেছে। উত্তরপ্রদেশে যোগী সরকারের বিরুদ্ধে কুৎসা ও অপপ্রচার করা হয়েছে। কিন্তু হাথরস কাণ্ডের পর সাতটা সিটে উপনির্বাচন হলে দেখা গিয়েছে ছ’টিতে জিতেছে বিজেপি। কাশ্মীরেও বিজেপির জয়জয়কার। অর্থাৎ,কৃষি বিলের পর যতগুলো রাজ্যে ভোট হয়েছে বিজেপি জিতেছে, বলেন শুভেন্দু।
রাজ্যের শাসক দলকে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দিয়ে শুভেন্দুর মন্তব্য, গ্রাম ঘুরে ঘুরে তৃণমূলকে ‘প্রতিষ্ঠিত’ করেছিলেন তিনিই। বিজেপির সাধারণ কর্মী হিসেবে সেই দলকে হারিয়ে তা প্রমাণ করে দেবেন তিনি।

Comments
Loading...