‘বিজেপি মানেই হিংসা, মানুষ সব লিখে রাখবে,’ পুলিশকে নিয়ে দিলীপ ঘোষের মন্তব্যের তীব্র প্রতিক্রিয়া তৃণমূলের

করোনার বিরুদ্ধে যে পুলিশকর্মীরা মানুষের জন্য সামনে থেকে লড়াই করছেন, মারণ ভাইরাসে প্রাণ দিচ্ছেন তাঁদের অপমান করছেন বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। রাজ্য পুলিশ প্রশাসনকে লক্ষ্য করে দিলীপ ঘোষের নজিরবিহীন আক্রমণের প্রেক্ষিতে এমনই প্রতিক্রিয়া দিল রাজ্যের শাসক দল। সোশ্যাল মিডিয়ায় তৃণমূল নেতা-কর্মীরা তুললেন #BJPMeansViolence স্লোগান। তৃণমূলের সোশ্যাল মিডিয়া হ্যান্ডেল থেকে লেখা হল, বাংলার মানুষের কাছে আবেদন, আপনারা ডায়রিতে লিখে রাখুন দিলীপবাবু কীভাবে পুলিশকে আক্রমণ করছেন। যাঁরা এই কঠিন সময়ে বাংলার স্বার্থে সামনে থেকে লড়াই করছেন, তাঁদের অপমান করছেন। এই লজ্জাজনক মন্তব্য বাংলার মানুষ ভুলবে না। রাজ্য বিজেপির সভাপতি ও বাংলা বিজেপির ট্যুইটার হ্যান্ডেলকে উদ্ধৃত করে এমনই লেখা হল তৃণমূলের সোশ্যাল মিডিয়া পেজে। হ্যাশট্যাগ দিয়ে যোগ করা হয় ‘BJPMeansViolence’ (বিজেপি মানে হিংসা)।

রবিবার সোদপুরের এক দলীয় অনুষ্ঠান থেকে রাজ্যের পুলিশ অফিসার ও কর্মীদের বেনজির আক্রমণ করেন দিলীপ ঘোষ।

আগেও বহুবার পুলিশ প্রশাসনকে আক্রমণ করেছেন দিলীপ। তবে এবার আরও চড়া দাগে পুলিশ প্রশাসনের দিকে আক্রমণ শানালেন তিনি। দিলীপের হুঁশিয়ারি ছিল, পুলিশের এই আনন্দ বেশিদিন টিকবে না। এক বছর পরে বউবাচ্চার মুখ দেখতে পাবেন না তাঁরা। ‘দু’নম্বরি’  পয়সায় ছেলেদের বেঙ্গালুরুতে ভর্তি করেছেন যে পুলিশ অফিসাররা তাঁদের সে পড়াশোনা শেষ হবে না। পুলিশের ছেলেমেয়েদের ডাক্তার-ইঞ্জিনিয়র নয়, পরিযায়ী শ্রমিক করে ছাড়া হবে বলে শাসানি দিলীপ ঘোষের। তাঁর এই মন্তব্য ঘিরে বিতর্ক, সমালোচনার ঝড় বইছে রাজনৈতিক মহলে।

তৃণমূলের সোশ্যাল মিডিয়া পেজ ছাড়াও তৃণমূল সাংসদ কাকলী ঘোষ দস্তিদার দিলীপ ঘোষকে ট্যুইটারে উদ্ধৃত করে লেখেন,”দিলীপ বাবু, দয়া করে পুলিশ কর্মীদের এবং তাঁদের পরিবারকে এইভাবে অসম্মান করবেন না। রাজনীতি রাজনীতির জায়গায় থাক। কয়েকটা ভোটের জন্যে মনুষ্যত্বটাই ত্যাগ করা শোভা দেয় কি?” এছাড়াও সাংসদ নুসরত জাহান, মন্ত্রী শশী পাঁজা, তৃণমূলের নেতা-মন্ত্রী ও কর্মী থেকে বিশিষ্টজনেরা পুলিশকে নিয়ে দিলীপ ঘোষের মন্তব্যের তীব্র সমালোচনা করেছেন।

Comments
Loading...