রাতের অন্ধকারে মাল মশলা পৌঁছে দেব, মদনের ইঙ্গিত ঘিরে তোলপাড়

খেলা হবে স্লোগান নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করলেন তৃণমূল নেতা মদন মিত্র। মঙ্গলবার কাঁথির পিছাবনীর সভা থেকে মদন মিত্র বলেন, খেলতে গেলে মালের প্রয়োজন, ভোটে যে-সব মালের দরকার হয়, আমি তা পৌঁছে দেব, আমাকে লিস্ট দেবেন। দিনে নয় রাতে মাল পৌঁছে যাবে।

১৭ ফেব্রুয়ারি বিজেপির পরিবর্তন যাত্রা উপলক্ষ্যে পিছাবনীর শহিদ স্মৃতিস্তম্ভের সামনে একটি সভা করা হয়। মঙ্গলবার তৃণমূলের পক্ষ থেকে পাল্টা জনসভার করা হয়। এই সভায় উপস্থিত ছিলেন মদন মিত্র। এদিনের জনসভা প্রথম থেকেই “খেলা হবে” স্লোগান নিয়ে সরগরম ছিল। এই স্লোগান নিয়ে মন্তব্য করতে গিয়ে মদন মিত্র বহিরাগত ইস্যুতে বিজেপিকে আক্রমণ করে জানান, ভিনরাজ্য থেকে হাতে মেশিন, বোমার মশলা নিয়ে বহিরাগতরা রাজ্যে ঢুকছে। তিনি বলেন,বহিরাগতদের প্রবেশ রুখতে মমতা ব্যানার্জিকে আগেই বর্ডার সিল করে দিতে বলেছিলাম।

এরপরেই মদন হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, যারা ঢুকে গিয়েছেন, তারা বেরনোর রাস্তা খুঁজে পাবে না। এসব কথার মাঝেই বিতর্কিত মন্তব্য করে বসেন মদন। তিনি বলেন, খেলতে গেলে মালমশলা লাগে। নির্বাচনের জন্য প্রয়োজনীয় মালমশলা পৌঁছে দেওয়ার আশ্বাস দেন তিনি। এমনকি রাতে মাল মশলা পৌঁছে দেবেন বলে জানান মদন। দলীয় কর্মীদের উদ্দেশ্যে মদনের বক্তব্য, বুথের এজেন্টদের তালিকা তৈরি করুন। আমি ট্রেনিং দিয়ে জানিয়ে দেব কীভাবে খেলতে হয়।

এদিন পিছাবনী হাইস্কুল সংলগ্ন শহিদ স্মৃতিস্তম্ভ সংলগ্ন মাঠে পেট্রল, ডিজেল, রান্নার গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধি, কৃষি আইন বাতিলের দাবিতে জনসভার আয়োজন করে তৃণমূল। সভায় মদন মিত্র ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন সদ্য তৃণমূলে যোগদানকারী অভিনেতা রণিতা দাস।

Comments
Loading...