আগামী ২৪ ঘণ্টায় কলকাতা-সহ দক্ষিণবঙ্গে বজ্রবিদ্যুৎ সহ মাঝারি বৃষ্টির পূর্বাভাস

কলকাতায় বিক্ষিপ্ত বৃষ্টির পাশাপাশি মুর্শিদাবাদ, বীরভূম, পশ্চিম বর্ধমানের দু’এক জায়গায় ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস দিল আবহাওয়া দফতর। তবে বৃষ্টি হলেও আদ্রতাজনিত অস্বস্তি বজায় থাকছে। এদিকে উত্তরবঙ্গের পাঁচ জেলা দার্জিলিং, কালিম্পং, আলিপুরদুয়ার, কোচবিহার, এবং জলপাইগুড়িতে শুক্রবার পর্যন্ত ভারী বৃষ্টির পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছে। জেলাগুলিতে ৭০ থেকে ১০০ মিলিমিটার পর্যন্ত বৃষ্টিপাত হতে পারে। বুধ ও বৃহস্পতিবার অতি ভারী বৃষ্টির হলুদ সর্তকতা দেওয়া হয়েছে।

মঙ্গলবার কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ২৭.৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস। যা স্বাভাবিকের থেকে এক ডিগ্রী বেশি। গতকাল বিকেলে সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৩৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস। যা স্বাভাবিকের থেকে ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস বেশি। বাতাসে আপেক্ষিক আর্দ্রতার পরিমাণ ৬২ থেকে ৯৫ শতাংশ। গত ২৪ ঘণ্টায় কলকাতা শহরে বৃষ্টিপাতের পরিমাণ ১৪.৩ মিলিমিটার। মঙ্গলবার দুপুর থেকে কলকাতার বিভিন্ন এলাকায় বিক্ষিপ্তভাবে বৃষ্টি হয়েছে। আকাশ মেঘলা, বাতাসে আপেক্ষিক আর্দ্রতা বেশি হওয়ায় আর্দ্রতাজনিত অস্বস্তি চরমে। এর মধ্যে বুধবার পর্যন্ত দক্ষিণবঙ্গের জেলাগুলিতে বজ্রবিদ্যুৎ-সহ বিক্ষিপ্ত বৃষ্টির পূর্বাভাস দেওয়া হয়েছে। আগামী ২৪ ঘণ্টায় মুর্শিদাবাদ বীরভূম পশ্চিম বর্ধমানের দু’এক জায়গায় ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।

হাওয়া অফিস জানাচ্ছে, বিহার থেকে ওড়িশা পর্যন্ত রয়েছে উত্তর-দক্ষিণ নিম্নচাপ অক্ষরেখা। অসম ও সংলগ্ন এলাকায় রয়েছে ঘূর্ণাবর্ত। হিমালয় সংলগ্ন এলাকায় সক্রিয় মৌসুমী অক্ষরেখার পশ্চিমাংশ দক্ষিণের দিকে সরবে ২৯ জুলাই। আস্তে আস্তে সমতলের দিকে এই রেখা সরে যাওয়ার ফলে দিল্লি, উত্তরপ্রদেশ ও উত্তর-পশ্চিম ভারতের রাজ্যগুলি তে বৃষ্টির পরিমাণ বৃদ্ধি পাবে ২৯ ও ৩১ জুলাই। এছাড়া পঞ্জাব, হরিয়ানা, চণ্ডীগড়, দিল্লি, হিমাচলপ্রদেশ, মধ্যপ্রদেশেও ২৯ জুলাই থেকে ৩১ জুলাই ভারী বৃষ্টির সম্ভাবনা।

Comments
Loading...