অমিত মিত্র: পুজোর সময় অসাংবিধানিক কথা বলে আতঙ্ক ছড়িয়ে গেলেন অমিত শাহ, জবাব দেবেন বাংলার মানুষ

এনআরসি নিয়ে অমিত শাহ যা বলে গেলেন, তাতে আতঙ্কিত হয়ে পড়ছি। আমার বার্থ সার্টিফিকেট নেই। তাহলে কি আমাকেও দেশ ছাড়া করা হবে? ঠিক এই ভাষাতেই অমিতকে জবাব দিলেন অমিত। এক্ষেত্রে প্রথম অমিত কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, মঙ্গলবার যিনি নেতাজি ইন্ডোরে দাঁড়িয়ে সাফ জানিয়ে দিয়েছেন, এনআরসি নিয়ে তাঁর দল এবং কেন্দ্রের অভিমুখ। আর অমিত শাহের মন্তব্য শুনে পুজোর সময় পাল্টা আতঙ্ক তৈরির অপচেষ্টার অভিযোগ আনলেন আরেক অমিত, তিনি রাজ্যের অর্থমন্ত্রী অমিত মিত্র। তাঁর প্রশ্ন, কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী প্রকাশ্য সভায় যা যা বললেন, তা কি সংবিধানসম্মত? পাশাপাশি ট্যুইটারে তীব্র আক্রমণ করলেন বিজেপির জাতীয়তাবাদের তত্ত্বকে।

 

 

নেতাজি ইন্ডোরে অমিত শাহের সভা শেষ হওয়ার ঘণ্টাখানেকের মধ্যেই নবান্ন থেকে অমিত শাহকে পাল্টা জবাব দেন অমিত মিত্র। তিনি বলেন, বাবার জন্ম যশোরে। কিন্তু আমি কলকাতার বাড়িতে জন্মেছি। আমার বার্থ সার্টিফিকেট নেই। রাজ্যের বর্ষীয়ান মন্ত্রীর প্রশ্ন, তাহলে কি আমাকেও দেশ থেকে তাড়ানো হবে? পাশাপাশি তাঁর সংযোজন, এখন আমাকে নাগরিকত্ব প্রমাণ করতে বললে কোন কাগজ দেখাবো! চারদিকে আতঙ্কের বাতাবরণ টের পাচ্ছি।

একইসঙ্গে অমিত শাহের বক্তৃতা নিয়েও তোপ দেগেছেন অমিত মিত্র। নবান্নে সাংবাদিক বৈঠকে অমিত মিত্র বলেন, কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলছেন, অন্য দেশ থেকে ভারতে আসা সব ধর্মের মানুষকে আশ্রয় দেওয়া হবে। শুধুমাত্র একটি নির্দিষ্ট ধর্মাবলম্বীদের কথা কিছু বললেন না। তাঁদের কি তাড়িয়ে দেবেন? রাজ্যের অর্থমন্ত্রীর প্রশ্ন, সংবিধান কি অমিত শাহকে এই কথা বলার অনুমতি দেয়?

মঙ্গলবার কলকাতায় এসে বিজেপি সভাপতি বলেন, হিন্দু, বৌদ্ধ, জৈন, ক্রিশ্চান শরণার্থীদের কোনও চিন্তা নেই। তাদের সবাইকে নাগরিকত্ব সংশোধনী বিলের মাধ্যমে ভারতের নাগরিকত্ব দেওয়া হবে। নিজের ভাষণে মুসলিমদের কথা একবারও উচ্চারণ করেননি অমিত শাহ। এর ঘন্টাখানেকের মধ্যেই কড়া প্রতিক্রিয়া দেন অর্থমন্ত্রী অমিত মিত্র। নবান্ন থেকে তিনি প্রশ্ন তোলেন, দেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ধর্মের নাম করে যে বিভাজন রেখা টানতে চাইছেন, তা কি আদৌ সংবিধান অনুমোদিত? অমিত মিত্র বলেন, দেশের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ধর্মের নাম করে বলে দিয়েছেন কাদের দেশে রাখবেন। এই বিভাজন পুরোপুরি অসাংবিধানিক। বাংলার মানুষ অমিত শাহদের জবাব দেবেন বলেও হুঁশিয়ারি দেন অমিত মিত্র।

Comments
Loading...