বিজেপির হাতছাড়া গারুলিয়া পুরসভা, আস্থা ভোটের আগেই পদত্যাগ পুরপ্রধান সুনীল সিংহের

হাতে নেই প্রয়োজনীয় সংখ্যা, তাই আস্থাভোটের আগেই গারুলিয়া পুরসভায় হার স্বীকার করল বিজেপি। অনাস্থা ভোটাভুটির আগেই পদত্যাগ করলেন গারুলিয়া পুরসভার বিজেপি পুরপ্রধান সুনীল সিংহ। ফলে বিজেপির হাতছাড়া হয়ে গেল বারাকপুরের গারুলিয়া পুরসভাও।
লোকসভা ভোটের পর থেকেই বারাকপুরের বিভিন্ন পুরসভার সঙ্গে সঙ্গে গারুলিয়াও হাতছাড়া হয়েছিল তৃণমূলের। ২১ আসনের গারুলিয়া পুরসভার ২০ জন সদস্যই তৃণমূলের থাকলেও, লোকসভা ভোটের সময় তাঁদের ১২ জনই বিজেপিতে যোগ দেয়। এদিকে লোকসভা ভোটের ফল প্রকাশের পরই ড্যামেজ কন্ট্রোলে নামে তৃণমূল। একের পর এক হাতছাড়া হওয়া পুরসভা উদ্ধারে উদ্যোগী হয় তারা। কিছুদিন আগেই ৪ জন তৃণমূলত্যাগী কাউন্সিলারকে ফের ঘরে ফিরিয়েছিল তারা। এরপরই সপ্তাহ দুয়েক আগে গারুলিয়া পুরসভার পুরপ্রধান সুনীল সিংহের বিরুদ্ধে অনাস্থা প্রস্তাব আনেন ১২ জন তৃণমূল কাউন্সিলার। ২১ আসনের গারুলিয়া পুরসভায় বিজেপির হাতে আছে মাত্র ৭ কাউন্সিলার। বাকি ১ জন ফরওয়ার্ড ব্লকের। এই প্রেক্ষিতে আস্থা ভোট হলে মুখ পুড়ত বিজেপির। তাই অনাস্থার মুখোমুখি না হয়ে পুরপ্রধানের পদ থেকেই সরে দাঁড়ালেন সুনীল সিংহ।
বারাকপুরের বিজেপি সাংসদ অর্জুন সিংহের আত্মীয় সুনীল সিংহ। ২ বছর আগে নোয়াপাড়া বিধানসভার উপনির্বাচনে তৃণমূল প্রার্থীও হন সুনীল। সেই ভোটে জিতে তিনি বর্তমানে বিধায়ক। এদিকে লোকসভা ভোটের আগে অর্জুন সিংহ বিজেপিতে চলে গেলেও সুনীল সিংহ কিছুটা অপেক্ষা করেছিলেন। লোকসভা ভোটের ফল প্রকাশের বেশ কিছুদিন পর তিনি বিজেপিতে যোগ দেন। সেইসঙ্গে গারুলিয়া পুরসভাও বিজেপির দখলে চলে আসে। কিন্তু তৃণমূলত্যাগী কাউন্সিলররা ফের ঘরে ফিরে যাওয়ায় সঙ্কটে পড়ে যান বিজেপি নেতা সুনীল সিংহ। তৃণমূলের দাবি, আস্থাভোটে পরাজয় আন্দাজ করেই পুরপ্রধানের পদ থেকে সরে গিয়েছেন বিজেপি নেতা সুনীল সিংহ।

Comments
Loading...