মহালয়ার পর থেকে একঝাঁক পুজো উদ্বোধনে মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি

মহালয়া থেকেই পুজোর উদ্বোধন শুরু করেছেন মুখ্যমন্ত্রী। বৃহস্পতিবার ১৮টি পুজোর উদ্বোধন করেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা ব্যানার্জি। শুক্রবারও একডালিয়া এভারগ্রিন, ফাল্গুনী সঙ্ঘ, সিংহী পার্ক, বালিগঞ্জ কালচারাল, হিন্দুস্তান পার্ক, সমাজসেবী সংঘ, শিব মন্দির, মুদিয়ালি, ৬৬ পল্লি, বাদামতলা আষাঢ় সংঘ, সঙ্ঘশ্রী, মুক্ত দল ও ত্রিধারার মতো বড় পুজোগুলির উদ্বোধন করেন মমতা ব্যানার্জি।

বৃহস্পতিবার বিধানসভায় বিধায়ক পদে শপথ নেওয়ার পরেই পুজোর উদ্বোধন করতে বেরিয়ে যান মমতা ব্যানার্জি। প্রথমে যান কলেজ স্কোয়ারে। পুজোর উদ্বোধন সেরে সেই মঞ্চ থেকেই গাজলডোবায় নতুন কটেজ এবং ওল্ড ও নিউ দিঘার মাঝে গড়ে ওঠা নবনির্মিত সরকারি হোটেলের আনুষ্ঠানিক সূচনা করেন। সেখানে উপস্থিত ছিলেন পর্যটন দফতরের আধিকারিকরাও।

কলেজ স্কোয়ারে পুজো উদ্বোধনে গিয়ে মুখ্যমন্ত্রী বলেন, মান্না দে বুঝিয়ে দিয়েছিলেন কলেজ স্ট্রিটের মাহাত্ম। তিনি বলেন, আমি যখন ছাত্র ছিলাম, তখন মাঝেমধ্যে এখানে আসতাম। এখানে পুটিরামের দোকান লুচি খেতাম।

কলেজ স্কোয়ার থেকে বেরিয়ে মুখ্যমন্ত্রী খিদিরপুর ৭৪ পল্লি, খিদিরপুর ২৫ পল্লি, বেহালা নতুন দল, বড়িশা ক্লাব, আদি বালিগঞ্জ, বোসপুকুর শীতলামন্দির, বোসপুকুর তালবাগান, অজেয় সংহতি, হিন্দুস্তান ক্লাব, কালীঘাট মিলন সঙ্ঘ-সহ আর কিছু পুজোর উদ্বোধন করেন। বেহালার বড়িশা ক্লাবের পুজো উদ্বোধনে গিয়ে মুখ্যমন্ত্রী প্রতিমার সামনে কিছুক্ষণ থমকে দাঁড়ান।

Comments
Loading...