দেশে মহম্মদ বিন তুঘলকের শাসন চলছে, মোদীকে আক্রমণ কংগ্রেসের

প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীকে দিল্লির সুলতান মহম্মদ বিন তুঘলক ও উত্তর প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের সঙ্গে মোঘল সম্রাট আওরঙ্গজেবের তুলনা করলেন কংগ্রেস মুখপাত্র রণদীপ সুরজওয়ালা। নরেন্দ্র মোদী ও যোগী আদিত্যনাথের সরকার পরিচালনাকে কটাক্ষ করে কংগ্রেস মুখপাত্র বলেন, ‘তালিবানি শাসন চলছে ভারতে’।
উত্তর প্রদেশের বুলন্দশহরে পুলিশ ইন্সপেক্টর সুবোধ কুমার সিংহ হত্যার ঘটনায় বিজেপি সরকারের এক হাত নিয়েছেন কংগ্রেস মুখপাত্র। তিনি দাবি করেন, বিজেপির প্রত্যক্ষ মদতে খুন হতে হয়েছে ওই পুলিশ অফিসারকে। কিন্তু এটা ভেবে তিনি বিস্মিত যে কেউ কেন মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের দিকে আঙুল তুলছেন না!
শনিবার দিল্লিতে এক সাংবাদিক বৈঠকে দেশের বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে বিজেপি সরকারকে কাঠগোড়ায় তুলেছেন রণদীপ সুরজওয়ালা। দেশে শাসনের নামে গুণ্ডামি চলছে এবং গণতন্ত্র বিপাকে বলে মন্তব্য করেন তিনি। প্রধানমন্ত্রী শুধু বিরোধীদের ন্যাক্কারজনক ভাষায় অপমান ও সস্তা ডায়লগ দিয়ে হাততালি কুড়োতে ব্যস্ত। সুষ্ঠভাবে দেশ চালাতে পারেন না। পাশাপাশি, সুরজওয়ালা জানান, পাঁচ রাজ্যের ভোটের ফলাফল নিয়ে আত্মবিশ্বাসী কংগ্রেস। সুরজওয়ালার কথায়, আগামী ১১ই ডিসেম্বর হবে ‘নতুন ভোর’।
প্রিয়াঙ্কা চোপড়া ও নিক জোনসের বিয়ের রিসেপশনে হাজির থাকা নিয়েও প্রধানমন্ত্রীকে কটাক্ষ করেছেন কংগ্রেস মুখপাত্র। তিনি বলেন, সেলিব্রিটিদের বিয়ের নিমন্ত্রণ রক্ষার জন্য প্রধানমন্ত্রীর হাতে সময় আছে। কিন্তু বুলন্দশহরে যখন পুলিশ খুন হন বা দিল্লিতে যখন কৃষক আন্দোলন হয় সেখানে উপস্থিত হওয়ার সময় নেই নরেন্দ্র মোদীর। রণদীপ সুরজওয়ালার কটাক্ষ, প্রধানমন্ত্রী যদি গণতন্ত্রকে সম্মান করেন তাহলে অন্তত একবার নিজের ব্যর্থতা নিয়ে মুখ খোলার জন্য তাঁর একটা সাংবাদিক বৈঠক করা উচিত।
যোগী আদিত্যনাথের সাম্প্রতিক ‘হনুমান ও দলিত’ মন্তব্যের কড়া সমালোচনা করে কংগ্রেস মুখপাত্র বলেন, নরেন্দ্র মোদী ও বিজেপি জাত-পাত ও ধর্মের রাজনীতি করে দেশভাগের অপচেষ্টা করছেন।

Comments
Loading...