করোনা পরিস্থিতির মধ্যেও বাংলা দখলে মরিয়া মোদী-শাহ, দীপঙ্কর ভট্টাচার্য্যের ট্যুইট শেয়ার করে দাবি ডেরেকের 

সিপিআইএমএল লিবারেশনের সাধারণ সম্পাদক দীপঙ্কর ভট্টাচার্য সোমবার একটি ভিডিও ট্যুইট করে, মোদীর তীব্র সমালোচনা করেন

দেশ জুড়ে ভয়াবহ করোনা পরিস্থিতির জেরে বিরোধীরা একযোগে কেন্দ্রীয় সরকারের সমালোচনায় সরব হয়েছে। বিরোধীদের দাবি, মোদী সরকারের অব্যবস্থার জেরেই দেশে সংক্রমণের হার আকাশছোঁয়া। 

সিপিআইএমএল লিবারেশনের সাধারণ সম্পাদক দীপঙ্কর ভট্টাচার্য সোমবার একটি ভিডিও ট্যুইট করেন, ক্যাপশনে হ্যাসট্যাগ দিয়ে মোদীর তীব্র সমালোচনা করেন তিনি। যার সারমর্ম, মোদী সরকার করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে ব্যৰ্থ, অবিলম্বে প্রধানমন্ত্রী ইস্তফা দিন।  

ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে  করোনা কালে মানুষের দুর্দশার ছবি। মৃতদেহের ভারে উপচে পড়ছে  শ্মশান। কোথাও শ্মশানে সারি সারি মৃতদেহ পোড়ানো হচ্ছে , কোথাও সম্পূর্ণ প্যাক করা একাধিক মৃতদেহ ঘরে পড়ে  রয়েছে। ভিডিওটির একটি অংশে দেখা যায় দূর থেকে ক্যামেরাবন্দি শ্মশানের ছবি, যেখানে দাউ দাউ করে অনেকগুলি চিতা জ্বলছে।

ভিডিওটির ব্যাকগ্রাউন্ডে নরেন্দ্র মোদীর ভাষণের একটি অংশ শোনা যাচ্ছে। দু’তিন দিন আগে বাংলায় সভা করতে এসে জনসমাগম দেখে উচ্ছসিত হয়ে পড়েন নরেন্দ্র মোদী। তাঁর সেই বক্তব্যই ভয়েস ওভারে ব্যবহার করে তৈরি করা হয়েছে ভিডিওটি। দীপঙ্কর ভট্টাচার্যের সেই ট্যুইট রিট্যুইট করলেন ডেরেক ও’ব্রায়েন।  

 

[আরও পড়ুন- Corona Second Wave: আগামী সোমবার পর্যন্ত সম্পূর্ণ লকডাউন রাজধানী দিল্লিতে]

করোনা পরিস্থিতির জেরে নির্বাচনী প্রচারে লাগাম টেনেছেন মমতা ব্যানার্জি, রাহুল গান্ধী। বড় জনসভা করছে না সিপিএম। কিন্তু বিজেপির দিক থেকে তেমন কোনও পদক্ষেপের ঘোষণা হয়নি। গোটা দেশেই মোদী শাহের পার্টি সমালোচনার মুখে পড়েছে। বাংলা জেতার জন্য মোদী শাহ যে কতটা মরিয়া তা তাঁদের কার্কলাপেই প্রমাণিত বলে দাবি বিরোধীদের। 

করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে অন্য সব দলের নেতারা যখন মানুষের জীবন কীভাবে বাঁচাবেন তা ভাবতে ব্যস্ত, তখন বিজেপি মানুষের জীবনের বিনিময়ে বাংলা দখলের নীল নকশায় মগ্ন, অভিযোগ ডেরেক ও’ব্রায়েনের। তাই প্রধানমন্ত্রীর হুঁশ ফেরাতেই রিট্যুইট বলে জানাচ্ছেন তিনি।              

Comments
Loading...