নতুন ব্রিজ এবং রাস্তা যারা তৈরি করবে, তাদেরই রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্ব নিতে হবে, দেখুন কী বললেন ফিরহাদ হাকিম

এবার থেকে যে সংস্থা নতুন ব্রিজ এবং রাস্তা বানাবে তাদেরই তা রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্ব নিতে হবে। এমনই নিয়ম চালু করতে চলেছে রাজ্য সরকার। পরপর উল্টোডাঙা, বিবেকানন্দ এবং সম্প্রতি মাঝেরহাট ব্রিজ ভেঙে যাওয়া থেকে শিক্ষা নিয়ে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে রাজ্য সরকার। বুধবার মহাকরণে একথা জানান রাজ্যের পুর ও নগরোন্নয়নমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম। তিনি বলেন, ব্রিজের ক্ষেত্রে ২৫ বছর এবং রাস্তার ক্ষেত্রে ৫ বছর রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্ব নির্মাণকারী সংস্থাকেই নিতে হবে। রক্ষণাবেক্ষণের খরচ বহন করবে সরকার, কিন্তু ব্রিজ বা রাস্তা তৈরি করার পর তার কোনও রকম রক্ষণাবেক্ষণের অভাব হলে সে ক্ষেত্রে সেই সংস্থাকেই ধরা হবে।

বুধবার মহাকরণে ফিরহাদ হাকিম আরও জানান, উল্টোডাঙ্গা ব্রিজের রক্ষণাবেক্ষণের জন্য তিনি ডেকে পাঠিয়েছিলেন ম্যাকিনটোস বার্নকে। কলকাতায় যত ব্রিজ আছে, সেই সমস্ত বড় বড় ব্রিজগুলোকে সরেজমিনে খতিয়ে দেখতে বৃহস্পতিবার সকাল থেকেই বের হচ্ছেন রাজ্যের মন্ত্রী ফিরহাদ হাকিম।
বৃহস্পতিবার চেন্নাই থেকে একটি বহুজাতিক সংস্থার বিশেষজ্ঞদেরও ডেকে পাঠানো হয়েছে শহরে। শহর কলকাতার যে সমস্ত ব্রিজ রয়েছে তার রক্ষণাবেক্ষণ কীভাবে অত্যাধুনিক মানের করা যায় এবং অত্যাধুনিক প্রযুক্তি দিয়ে কীভাবে নতুন ব্রিজ তৈরি করা যায় তা নিয়েই কথা বলার জন্য বহুজাতিক সংস্থার প্রতিনিধিদের ডেকে পাঠানো হয়েছে বলে জানান পুরো ও নগরোন্নয়ন।
মাঝেরহাট ব্রিজ ভেঙে পড়ার পর যথেষ্ট সমালোচনার মুখে পড়েছে রাজ্য। এর জন্য পূর্ত দফতরেরও দায় আছে বলে জানান মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। মাঝেরহাট ব্রিজ পুরো ভেঙে ফেলা হবে বলে সিদ্ধান্ত নিয়ে রাজ্য। এখন বাইরে থেকে পারদর্শী সংস্থাকে এনে তা নতুন করে তৈরি করতে চাইছে রাজ্য সরকার।

Comments
Loading...