সুইগি-জোম্যাটোর ব্যবসায় ভাটা, বিপুল ক্ষতি মোকাবিলায় ছাড়ের রাস্তা ছাড়ছে অনলাইন ফুড ডেলিভারি সংস্থা

গাড়ি বাজার থেকে আইটি সেক্টর, সর্বত্র অর্থনৈতিক মন্দার ছাপ স্পষ্ট। এমনকী জনপ্রিয় ফুড ডেলিভারি অ্যাপ জোমাটো, সুইগি, উবর ইটসের বাজারেও ধস। এবার বিক্রি বাড়াতে বিশাল ছাড় দিয়ে খাবার বিক্রি করা কমিয়ে দিচ্ছে অনলাইন ফুড ডেলিভারি সংস্থাগুলি।
বাজার ঠিক কতটা খারাপ? সংশ্লিষ্ট সেক্টরে গত অগাস্ট থেকে অক্টোবর পর্যন্ত ১-২ শতাংশ বৃদ্ধি কমেছে। দ্রব্য মূল্যবৃদ্ধির বাজারে ক্রেতা কমছে অনলাইন ফুড ডেলিভারি অ্যাপগুলিতে। তথ্য বলছে, গত ১৮ মাস ধরে ভালো ব্যবসা করার পর ক্রমশ ধীর হচ্ছে সুইগি, জোমাটোদের বাজার। তাই লোকসানের বহর কমাতে খাবারে ডিসকাউন্ট ও প্রোমোশন কমাচ্ছে অনলাইন ফুড ডেলিভারি সংস্থাগুলি।
ইংরেজি দৈনিক ইকনমিক টাইমসের তথ্য বলছে, চলতি বছরের জানুয়ারি মাসে প্রতিদিন গড়ে ১৮ লক্ষ খাবারের অর্ডার পেত তিনটি জনপ্রিয় ফুড ডেলিভারি সংস্থা। এখন সেই অর্ডারের পরিমাণ ক্রমশই কমছে। ছুটির দিন, ডিসকাউন্ট সহ একাধিক কারণে মাঝেমধ্যেই ফুড ডেলিভারি অ্যাপগুলিতে ক্রেতার সংখ্যা বাড়লেও আপাতভাবে তাদের বাজার মন্দা বলেই জানাচ্ছে সংস্থাগুলি। অক্টোবরের উৎসবের মরসুমে এই সেক্টরে লাভ মাত্র ১-২ শতাংশ বৃদ্ধি পেয়েছে। কিন্তু তা যথেষ্ট নয় বলে দ্য ইকনমিক টাইমসকে জানিয়েছেন জোমাটো-র এক মুখপাত্র। তাঁর মতে, এর চেয়ে আগে অনেক ভালো ব্যবসা হত। অন্যদিকে, বাজার মন্দার আরও একটি কারণের কথা জানাচ্ছেন সুইগির এক বিনিয়োগকারী। তাঁর দাবি, নতুন কোনও ক্রেতার ক্ষেত্রে সুইগি একটি মিল অর্ডারের সঙ্গে আরও একটি মিল বিনামূল্যে দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছিল। কিন্তু তাদের এই ‘গোল্ড প্রোডাক্ট’ এর বিরুদ্ধে রেস্তরাঁ মালিকরা প্রতিবাদ জানানোর পর একটা বড় অংশের ক্রেতা কমেছে। তবে সমস্যা ও কারণ যাই হোক না কেন এবার মন্দার কোপে যে তারাও পড়েছে তা একবাক্যে স্বীকার করছে জোমাটো, সুইগি, উবর ইটস।

Comments
Loading...