শেষ মুহূর্তে স্বপ্নভঙ্গের হতাশায় ডুবে ভারতীয় দল, ওমানের কাছে হারল ১-২ গোলে

বিশ্বকাপ যোগ্যতা অর্জন পর্বের প্রথম ম্যাচ। গুয়াহাটির এই ম্যাচ নিয়ে ভারতীয় ফুটবল সমর্থকদের প্রত্যাশা ছিল আকাশচুম্বী। ইন্টারকন্টিনেন্টাল কাপে ব্যর্থতার পরও ভারতীয় দলের কোচ ইগর স্টিম্যাকের উপর ভরসা রেখেছিল ভারতীয় ফুটবল মহল। বৃহস্পতিবার ওমানের বিরুদ্ধে ম্যাচে অবশ্য শুরু থেকেই স্বপ্ন দেখাচ্ছিলেন সুনীল ছেত্রীরা। প্রথমার্ধে দুরন্ত ফুটবল খেলে ভারতীয় দল। ২৪ মিনিটের মাথায় শক্তিশালী ওমানের বিরুদ্ধে এগিয়ে যায় ভারত। ব্রেন্ডনের ফ্রি-কিক থেকে বুদ্ধিদীপ্ত গোলে ভারতকে এগিয়ে দেন সুনীল ছেত্রী। এছাড়াও আরও কয়েকটি গোলের সুযোগ নষ্ট করে ভারত। কিন্তু প্রথমার্ধের শেষের দিক থেকে একতরফা খেলার দখল নেয় ওমান। দ্বিতীয়ার্ধে খেলা হতে থাকে ভারতীয় রক্ষণ এবং গোলরক্ষকের সঙ্গে গোটা ওমান দলের। একের পর এক আক্রমণ আর কোনওভাবে রুখে দেওয়া। তিনটি ক্ষেত্রে দুরন্ত সেভ করেন ভারতীয় দলের গোলরক্ষক গুরপ্রীত সিংহ। যখন মনে হচ্ছে, ওমানকে প্রথম ম্যাচে হারিয়ে ইতিহাস তৈরি করতে চলেছে ভারতীয় দল তখনই স্বপ্নভঙ্গ। ৮২ এবং ৮৯ মিনিটে পরপর দুটি গোল করে ওমান। শেষ ১০ মিনিটে সব শেষ ভারতের।
স্বাভাবিকভাবেই স্বপ্নের কাছাকাছি গিয়েও ফিরে আসতে হওয়াটা মেনে নিতে পারছেন না ভারতীয় দলের ফুটবলাররা। ভারতীয় দলের সব থেকে অভিজ্ঞ ফুটবলার সুনীল ছেত্রী বলছেন, ‘এই হার হজম করা ভীষণ কঠিন। সত্যি কথা বলতে দ্বিতীয়ার্ধে বল আমাদের দখলেই ছিল না। তবে একটা কথা বলা যায়, শক্তিশালী প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে প্রতিটা ফুটবলার লড়াই করেছে।’
স্বাভাবিকভাবেই মারাত্মক হতাশ ভারতীয় দলের কোচ ইগর স্টিম্যাক। তিনি বলছেন, ‘আমি বিরতিতে বারবার বলেছিলাম ফুটবলারদের, এই সুযোগটি চলে যেতে দিও না। কিন্তু সেই ওরা দুটো ভুল করল। আর আমরা শাস্তি পেলাম। অন্তত একটা পয়েন্ট আমাদের পাওয়া উচিত ছিল। তাহলে অন্তত দ্বিতীয় স্থান অর্জনের লড়াইয়ে থাকতে পারতাম। প্রথমার্ধে আমরা যে ফুটবল খেলেছি, আমরা কিন্তু এক পয়েন্টের যোগ্য।’

Comments
Loading...