বিচারপতি চন্দ্রচূড়: আমিও রিপাবলিক টিভি দেখি না, কিন্তু অর্ণব গোস্বামীর মামলায় হস্তক্ষেপ না করলে আমরা ক্ষয়ের পথে যাব

“আজ এই মামলায় সুপ্রিম কোর্ট হস্তক্ষেপ না করলে আমরা ক্ষয়ের পথে যাব।” আত্মহত্যায় প্ররোচনা মামলায় ধৃত অর্ণব গোস্বামীকে অন্তর্বর্তীকালীন জামিন দেওয়ার আগে এমনই মন্তব্য করলেন বিচারপতি ডি ওয়াই চন্দ্রচূড়।

২০১৮ সালের ৫ মে আলিবাগে আত্মহত্যা করেন ইন্টিরিয়র ডিজাইনার অনভি নায়েক ও তাঁর মা। সংশ্লিষ্ট মামলায় দু’বছর পর গ্রেফতার হওয়া অর্ণব গোস্বামীর জামিনের আবেদন বম্বে হাইকোর্ট নাকচের পর সুপ্রিম কোর্টে আবেদন করেছিলেন রিপাবলিক টিভির কর্ণধার সহ সংশ্লিষ্ট মামলায় ধৃত বাকি দুই অভিযুক্ত। বুধবার সেই মামলার শুনানির দীর্ঘ সওয়াল জবাবের পর অর্ণব গোস্বামীর অন্তর্বর্তীকালীন জামিনের আবেদন গ্রাহ্য করে সুপ্রিম কোর্ট। সেই সঙ্গে বিচারপতি ডি ওয়াই চন্দ্রচূড় ও বিচারপতি ইন্দিরা ব্যানার্জির বেঞ্চে হওয়া এই মামলার শুনানিতে কিছু উল্লেখযোগ্য মন্তব্য করেন বিচারপতি চন্দ্রচূড়।

মামলার শুনানিতে বিচারপতি চন্দ্রচূড় বলেন, বম্বে হাইকোর্ট ৫৬ পৃষ্ঠার বিস্তারিত আদেশনামা লিখেছে, কিন্তু এই মামলায় কোনও প্রাথমিক অপরাধ প্রমাণিত হয়েছে কিনা সে বিষয়ে একটি মৌলিক প্রশ্নেরও সমাধান করেনি! তিনি আরও বলেন, এই জাতীয় মামলায় যেখানে কিছু বকেয়া অর্থ প্রদান না করায় কেউ আত্মহত্যা করেন, সেটা কি আত্মহত্যায় প্ররোচনা বলে গণ্য হতে পারে? তার জন্য যখন কেউ জামিন পাবেন না তা আইনের চোখে হাস্যকর হবে না তো? বিচারপতি চন্দ্রচূড়ের কথায়, এই আত্মহত্যায় কোনও সক্রিয় উসকানি আছে কি? এটা কি হেফাজতে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করার মতো মামলা? তিনি এও বলেন, ‘আজ যদি এই মামলায় সুপ্রিম কোর্ট হস্তক্ষেপ না করে, তাহলে আমরা ক্ষয়ের পথে যাব। এই অভিযুক্তকে (অর্ণব গোস্বামী) ভুলে যান। ওনার মতাদর্শ কারও পছন্দ নাও হতে পারে। আমার কথা বলা হলে, আমি নিজেও রিপাবলিক টিভি দেখি না। এসব সরিয়ে রাখা হল। কিন্তু আমাদের রাজ্য সরকারগুলি যদি মানুষকে এমনভাবে ঠেসে ধরে তাহলে সুপ্রিম কোর্টকে হস্তক্ষেপ করতেই হয়।

ইন্টিরিয়র ডিজাইনারের সুইসাইড নোটে উল্লেখ ছিল পাওনাদারদের চাপে তিনি আত্মহত্যা করতে বাধ্য হচ্ছেন। সেখানে অর্ণব গোস্বামীর রিপাবলিক টিভি ও বাকি দুই সংস্থার কাছ থেকে ৫ কোটি ৪০ লক্ষ টাকা তাঁর পাওনা আছে বলে লেখা হয়।

Comments
Loading...