কর্ণাটকের ১৭ বিধায়কের সদস্যপদ বাতিল করল শীর্ষ আদালত, তবে ভোটে লড়তে পারবেন তাঁরা

কর্ণাটকের ১৭ বিক্ষুব্ধ বিধায়কের সদস্যপদ খারিজের সিদ্ধান্ত বহাল রাখল সুপ্রিম কোর্ট। তবে যে ওই বিধায়করা ২০২৩ সাল পর্যন্ত ভোটে লড়তে পারবেন না বলে কর্ণাটকের তৎকালীন স্পিকার কে আর রমেশ যে নির্দেশ দিয়েছিলেন তাও বাতিল করে দিয়েছে শীর্ষ আদালত। গত জুলাই মাসে কংগ্রেসের ১৪ এবং জেডিএসের ৩ বিধায়কের সদস্যপদ খারিজের কথা জানিয়েছিলেন স্পিকার। তাঁদের বিদ্রোহের জেরে জুলাই মাসে জনতা দল সেকুলার (জেডিএস)-কংগ্রেস জোট সরকারের পতন হয়। পরে ক্ষমতায় আসে বিএস ইয়েদুরাপ্পার নেতৃত্বাধীন বিজেপি সরকার। সুপ্রিম কোর্ট বলেছে, সংসদীয় গণতন্ত্রে ট্রেজারি বেঞ্চ ও বিরোধী বেঞ্চের সদস্যদের সমান নীতিবোধ দরকার। তৎকালীন স্পিকারের ভূমিকার সমালোচনা করে সর্বোচ্চ আদালতের মন্তব্য, সাংবিধানিক দায়িত্ব মেনে  নিরপেক্ষ থাকার বিষয়টা আজকাল অধ্যক্ষরা ভুলে যাচ্ছেন। এটা একটা ক্রমবর্ধমান ঝোঁক। দেখা যাচ্ছে, দলবদল করে অনেক সময়ই বিধায়করা ঘোড়া কেনাবেচায় জড়িয়ে পড়েন। এর ফলে নাগরিকরা স্থায়ী ও স্থিতিশীল সরকার থেকে বঞ্চিত হয়। এই ধরনের অগণতান্ত্রিক কার্যকলাপ বন্ধ হওয়া জরুরি।

Comments
Loading...