ফের মুখ্যমন্ত্রীর কনভয়ের সামনে ‘জয় শ্রীরাম’ স্লোগান, ১০ জন গ্রেফতার, উত্তেজনা অব্যাহত বারাকপুরে

বৃহস্পতিবার ভাটপাড়ায় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে উদ্দেশ্য করে ‘জয় শ্রীরাম’ ধ্বনি দেওয়ার ঘটনায় ১০ জনকে গ্রেফতার করল পুলিশ।
বৃহস্পতিবার দ্বিতীয় বারের জন্য প্রধানমন্ত্রী হিসেবে যখন রাষ্ট্রপতি ভবনে শপথ নিচ্ছেন নরেন্দ্র মোদী, তখন নৈহাটিতে ঘরছাড়াদের ফেরাতে তৃণমূলের বিক্ষোভ কর্মসূচিতে যান মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেখানে ফের তাঁর কনভয়ের সামনে ‘জয় শ্রীরাম’ স্লোগান দেয় কিছু যুবক। ক্ষুব্ধ মুখ্যমন্ত্রী গাড়ি থেকে নেমে তেড়ে যান তাদের দিকে। পরে আরএসএস-এর পাল্টা ‘জয় হিন্দ বাহিনী’ এবং মহিলাদের নিয়ে ‘বঙ্গ জননী কমিটি’ গঠনের নির্দেশ দেন মুখ্যমন্ত্রী। এই দুই বাহিনীর নির্দিষ্ট পোশাকও নির্ধারণ করে দেন মমতা। এছাড়া নিজেদের নিরাপত্তারক্ষায় প্রত্যেকের হাতে ‘শান্তিনিকেতনী ডাণ্ডা’ রাখারও নিদান দেন তিনি।
নৈহাটির ধরণা মঞ্চ থেকে ফেরার সময় ভাটপাড়ার কাছে ছন্দপতন হয়। পশ্চিম মেদিনীপুরের চন্দ্রকোণার ঘটনার পুনরাবৃত্তি করে মুখ্যমন্ত্রীর গাড়ির সামনে ‘জয় শ্রীরাম’ ধ্বনি দিতে থাকে বেশ কয়েকজন। মেজাজ হারান মুখ্যমন্ত্রী। গাড়ি থেকে নেমে তিনি অভিযোগ করেন, বিজেপির ফেট্টি বেঁধে গালাগাল দেওয়া হচ্ছে তাঁকে। যাঁরা এদিন ‘জয় শ্রীরাম’ বলেছে তাদের প্রত্যেকের বাড়িতে নাকা চেকিং করা হবে জানান আক্রমণাত্মক তৃণমূল নেত্রী। কিন্তু গাড়িতে ওঠার পর দ্বিতীয়বারের জন্য তাঁকে উদ্দেশ্য করে ‘জয় শ্রীরাম’ ধ্বনি দেন কয়েকজন। এরপর রীতিমতো ক্ষুব্ধ হয়ে যান তৃণমূল নেত্রী। মমতা অভিযোগ করেন, ভদ্রতার সীমা ছাড়িয়ে যাচ্ছে কয়েকজন এবং পুলিশি ব্যবস্থা নেওয়া হবে জড়িতদের বিরুদ্ধে। মুখ্যমন্ত্রীর এই ভিডিও ভাইরাল হওয়ার কয়েক ঘন্টা বাদে, বৃহস্পতিবার রাতে ঘটনায় যুক্ত থাকার অভিযোগে ১০ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

Comments are closed.